প্রথম টেস্টে ইনিংসে ব্যবধানে হেরেছিল বাংলাদেশ। ওয়েলিংটনে দ্বিতীয় টেস্টেও চিত্রতা একটুও বদলালো না। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে নিউজিল্যান্ড জিতেছে ইনিংস ও ১২ রানে। কিউইরা নিশ্চিত করেছে সিরিজ জয়ও। তিন ম্যাচ সিরিজে স্বাগতিকরা এগিয়ে গেছে ২-০ ব্যবধানে। আগামী ১৬ মার্চ থেকে ক্রাইস্টচার্চে শুরু হবে শেষ টেস্ট।

৭ উইকেট হাতে নিয়ে ১৪১ রানে পিছিয়ে থেকে পঞ্চম ও শেষদিন শুরু করা টাইগাররা দ্বিতীয় ইনিংসে গুটিয়ে যায় ২০৯ রানে। চতুর্থদিনে ২২১ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয়বার ব্যাটিংয়ে নেমে ৩ উইকেট হারিয়ে ৮০ রান তুলে দিন শেষ করেছিল তারা।

ইনিংস পরাজয় এড়ানোর লক্ষ্যে পঞ্চম দিনের শুরুটা ভালোই ছিল। আগের দিন দলীয় ৫৫ রান নিয়ে ক্রিজে জুটি বাঁধা মিঠুন ও সৌম্য এদিন দলীয় স্কোরটাকে তিন অংকের ঘরে নিয়ে যায়। তাদের ৫৭ রানের জুটির পর সৌম্যকে বিদায় করেন বোল্ট। ৫৭ বল থেকে ২৮ রান করেন তিনি।

পঞ্চম উইকেটে মাহমুদুল্লাহ ও মিঠুন গড়েন ৪০ রানের জুটি। দলীয় ১৫২ রানে ব্যাক্তিগত ৪৭ রানে ওয়াগনারের বলে আউট হন মিঠুন। এরপর দ্রত লিটন দাস আর তাইজুল ইসলামও ফিরেছেন ওয়াগনারের শর্ট বলে। লিটন করেন ১ আর তাইজুল রানের খাতাই খুলতে পারেননি।

অষ্টম উইকেটে মুস্তাফিজকে নিয়ে টাইগার অধিনায়ক ওয়ানডে ঢংয়ে ফিফটি তুলে নিয়ে অন্তত ইনিংস হারের লজ্জা এড়াতে চেষ্টা চালিয়েছিলেন। কিন্তু ১২ চার ও এক ছক্কায় ৬৯ বলে ৬৮ রান করে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি সাজঘরে ফিরতেই নিয়তি ঠিক হয়ে যায়।

শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ইবাদতকে আউট করে আনুষ্ঠানিকতা সারেন ওয়াগনার। ১৪ ওভার বল করে ৪৫ রানে ৫ উইকেট নিয়ে ইনিংসে সেরা তিনিই। ট্রেন্ট বোল্টের দখলে গেছে ৪ উইকেট। বাকি উইকেটটি ম্যাট হেনরির।

মন্তব্য: