মোহালিতে ক্রিস গেইলহীন মহারণে রোমাঞ্চকর জয় পেল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। দিল্লিকে ১৪ রানে হারিয়ে নাটকীয় জয় ছিনিয়ে নিল অশ্বিনের দল। সেই সঙ্গে আইপিএলে জয়ের ধারাবাহিকতা ধরে রাখল প্রীতির দল। চলতি আসরে চার ম্যাচে তিনটি জয় তুলে নিলো তারা

শেষ ওভারে ১৫ রান দরকার ছিল দিল্লির। হাতে ছিল দুই উইকেট। কিন্তু স্যাম কুরানই শেষ করে দিল্লির স্বপ্ন।প্রথম দুই বলে ফেরালেন রাবাডা ও লামিচানেকে। তার আগের ওভারের শেষ বলে তিনি আউট করেছিলেন হর্ষল প্যাটেলকে। যার ফলে হ্যাটট্রিক করেই দলকে জয় এনে দিলেন কুরান।

টস জিতে এদিন প্রথমে পাঞ্জাবকে ব্যাট করতে পাঠান দিল্লি অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার। রাহুল এদিনও শুরুতেই ঝড় তুললেন কিন্তু ১৫ রানে ক্রিস মরিসের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফিরে যান। ওপেন করতে নামা স্যাম কুরানকে ২০ রানে ফেরালেন লমিছানে। মায়াঙ্ক আগরওয়াল রান আউট হয়ে ফিরলেন ৬ রানে।

এ সময় সরফরাজ খান এবং ডেভিড মিলার মিলে পঞ্জাবের রানকে টেনে তোলেন। সরফরাজ ৩৯ এবং মিলার ৪৩ রান করেন। মনদীপ সিং ২৯ রানে অপরাজিত থাকেন। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রান তোলে প্রীতির দল। দিল্লির হয়ে ক্রিস মরিস ৩টি, রাবাদা ও লমিছানে ২টি করে উইকেট নেন।

পাঞ্জাবের পথ ধরেই দিল্লির শুরুটাও ভাল হয়নি। প্রথম বলেই ছন্দে থাকা ওপেনার পৃথ্বী শকে হারায় দিল্লি। শিখর ধওয়ান ও শ্রেয়স আইয়ার ইনিংসের হাল ধরলেও খুব একটা সাবলীল ছিলেন না। ২৫ বলে ৩০ রান করে ফেরেন ধওয়ান। শ্রেয়স করেন ২২ বলে ২৮ রান। পরের দিকে ঝোড়ো ব্যাটিং করে লড়াই জমিয়েছিলেন ঋষভ পন্থ ও কলিন ইনগ্রাম। ২৬ বলে ৩৯ রান করেন পন্থ। ইনগ্রাম ২৯ বলে ৩৮ রানে আউট হন। তবে শেষরক্ষা হয়নি। তাঁরা ফেরার পরই তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে দিল্লির ব্যাটিং।

স্যাম কুরানের হ্যাটট্রিকে বাজিমাত পাঞ্জাবের। ৪ বল বাকি থকতে ১৫২ রানে শেষ দিল্লির ইনিংস। ১৪ রানে ম্যাচ জিতে নিল পাঞ্জাব। স্যাম কারান ২.২ ওভারে ১১ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন। শামি ও অশ্বিন দুটি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ১৬৬/৯ (২০ ওভার)
মিলার ৪৩, সরফরাজ ৩৯
মরিস ৩০/২, লামিচানে ২৭/২, রাবাদা ৩২/২

দিল্লী ক্যাপিটালস ১৫২ (১৯.৪ ওভার)
পান্ট ৩৯, ইনগ্রাম ৩৮, ধাওয়ান ৩০
কুরান ১১/৪, শামি ২৭/২

ফল: কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ১৪ রানে জয়ী।

মন্তব্য: