আসিফ আলী ছিলেন না পাকিস্তানের ঘোষিত বিশ্বকাপ দলে। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ভালো পারফরম্যান্স দিয়ে বিশ্বকাপে জায়গা পাওয়া সম্ভাবনাটা জিইয়ে রেখেছেন আসিফ আলী। তবে এর মধ্যেই মরনব্যাধির রোগ ক্যানসারের কারণে দুই বছরে কণ্যা সন্তানকে হারালেন আসিফ।

ক্যানসারের চূড়ান্ত পর্যায়ে থাকা আসিফ কন্যা নূর ফাতিমার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। মৃত্যুর সাথে লড়াই করে রবিবার ফাতিমা মারা যান। মেয়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে পবিবার নিয়ে দেশে ফিরে গেছেন আসিফ।

আসিফের কন্যার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। বিবৃতিতে বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এমন সংবাদে আসিফ ও তার শোকার্ত পরিবারের পাশেই থাকবে বোর্ড।

পাকিস্তান সুপার লিগে আসিফ আলির দল ইসলামাবাদ ইউনাইটেড রোববার এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘আসিফ আলির কন্যার মৃত্যুতে আইএসএলইউ পরিবার গভীরভাবে সমবেদনা জানাচ্ছে। আসিফ ও তার পরিবারের জন্য প্রার্থনা করছি। আসিফ শক্তি ও উৎসাহের প্রতীক। তিনি আমাদের জন্য একটি অনুপ্রেরণা।’

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চারটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে আসিফের সংগ্রহ ছিল ৫১, ৫২, ১৭ ও ২২। আসিফের ব্যাটে রানের ছটা থাকলেও ৪-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান দল।

মন্তব্য: