একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের হয়ে সংসদীয় অসহ্য জিতেছেন ক্রীড়াঙ্গনের একাধিক ব্যক্তি। সেই তালিকায় সবচেয়ে বড় নাম ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তাজার। নির্বাচনে নড়াইল-২ আসন থেকে বিজয়ী হওয়ার পর অনেকেই ধারণা ছিল ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বটা হয়েতো মাশরাফিই পেতে যাচ্ছেন।

তবে শেষমেশ এই দায়িত্ব উঠল গাজীপুর-২ আসন থেকে নির্বাচিত হওয়া জাহিদ আহসান রাসেলের কাঁধে। তাকেই নতুন ক্রিয়া প্রতিমন্ত্রী হিসেবে বেছে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

জাহিদ আহসান মূলত ক্রীড়াঙ্গনেরই মানুষ। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের আগের দুইবার ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি। তাকে জায়গা দিতে গিয়ে বাদ পড়েছেন পূর্বে ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী দায়িত্বে থাকা ড. বীরেন শিকদার। শুধূ তাই নয় একাদশ জাতীয় সংসদের মন্ত্রী সভায়ই তার জায়গা হয়নি।

জাহিদ আহসান ছাড়া আরো ৮ ক্রীড়া ব্যাক্তিত্বের জায়গা হয়েছে জাতীয় সংসদে। আর তারা হলেন,
১। সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। নোয়াখালী-৫ আসন থেকে নির্বাচিত হয়ে আগের মতো এবারও সড়ক ও সেতু মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।
২। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাবেক সভাপতি ও আবাহনীর পরিচালক আ হ ম মুস্তফা কামাল সরকারের অর্থ মন্ত্রাণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন।
৩। বাংলাদেশ টেনিস ফেডারেশনের সভাপতি, বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সাবেক সহ-সভাপতি ও আবাহনীর পরিচালক মো. শাহরিয়ার আলম এবারও পেয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব।
৪। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক পরিচালক গোলাম দস্তগীর গাজী পূর্ণ মন্ত্রীত্ব পেয়েছেন পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের।

৫। আবাহনী লিমিটেডের অন্যতম পরিচালক ও সাবেক হকি খেলোয়াড় নসরুল হামিদ বিপু সরকারের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন এইবার।
৬। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশ ক্যারাম ফেডারেশনের সভাপতি জুনাইদ আহমেদ পলক।
৭। বাংলাদেশের শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি কামাল আহমেদ মজুমদার।
৮। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাবেক সহ-সভাপতি বীর বাহাদুর উশৈসিং হয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়কমন্ত্রী।

মন্তব্য: