বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে অনেকেই নামাজী হিসেবে বেশ পরিচিত আছেন। এমনকি খেলার ফাঁকে অনেক ক্রিকেটার নামাজ আদায় করে থাকেন। ক্রিকেটারদের নামাজের কথা মাথায় রেখেই এবার বিপিএল ম্যাচ সূচিতে আনা হয়েছে পরিবর্তন। তবে আজ চট্টগ্রামে ঘটে গেলো আরো এক অভিনব ঘটনা।

চলতি বিপিএল আসরে শুক্রবার বাদে প্রতিদিন দুপুরের খেলা শুরু হয় বেলা ১.৩০ আর রাতের খেলা শুরু হয় সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে। তবে শুক্রবারের ম্যাচ দুটি প্রথমটি শুরু হয় দুপুর ২ টায় আর পরের ম্যাচ শুরু হয় সন্ধ্যা ৭.০০ টায়। অর্থাৎ অন্য দিনের চেয়ে আধা ঘন্টা পিছিয়ে শুরু করা হয় ম্যাচ।

বাকি দিনের চেয়ে শুক্রবারের ম্যাচ সূচিতে পরিবর্তন আনার মূল উদ্দেশ্য ক্রিকেটাররা যেন জুম্মার নামাজ আদায় করতে পারেন। তবে শুধু ক্রিকেটাররাই নয় মাঠে আগত দর্শক-সমর্থকরা নিজেদের জুম্মার নামাজটা আদায় করে নিতে পারেন ঠিকভাবে। এটুকু পর্যন্ত করা হয়েছে বিপিএলে ঢাকার দুই পর্ব কিংবা সিলেট পর্বেও। কিন্তু চট্টগ্রাম পর্বে ঘটলো নতুন ঘটনা।

আজ চট্টগ্রাম জহুর আহম্মেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে লাগোয়া জামে মসজিদের জুম্মার নামাজ শুরু করা হয় ১.০০ দিকে। তবে অন্যদিন দেশের সব মসজিদেই গড়পড়তা ১.২০ থেকে ১.৪০ এর মধ্যে শুরু হয় জুম্মার নামাজের জামাত। অর্থাৎ অন্য দিন থেকে ৩০ মিনিট এগিয়ে নিয়ে জুম্মার নামাজ শুরু করা হয়।

মূলত ক্রিকেটার, কোচিং স্টাফ ও দর্শকরা যাতে ঠিক মতো নিজেদের জুম্মার নামাজ আদায় করে খেলায় মাঠে ফিরতে পারেন। তাছাড়া ম্যাচের শুরুর ৩০ মিনিট আগে যেহেতু টস হয়। তাই দুই দলের অধিনায়ক যেন নিজেদের নামাজ আদায় করে এসে মাঠে উপস্থিত থাকতে কোনো সমস্যা না হয়।

উল্লেখ্য, বিপিএলের পঞ্চম আসরে মিরপুর স্টেডিয়ামে রাজশাহী এবং সিলেটের মধ্যকার ম্যাচে টসের পরেই জুম্মার নামাজের জন্য ১০ মিনিটের বিরতি নিয়েছিলেন ক্রিকেটারা। সে সময় মুশফিকুর রহীম, নাসির হোসেন, সাব্বির রহমান, মুমিনুল হক, তাইজুল ইসলাম ও নুরুল হাসান সোহানরা স্টেডিয়াম লাগোয়া বিসিবি একাডেমিতে জুম্মার নামাজ আদায় করেন।

মন্তব্য: