ঘরের মাটিতে ব্যাটিং বিপর্যয়ের প্রমান রাখলো চিটাগং ভাইকিংস। বৃষ্টির জন্য এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে আজ প্রতি ইনিংস থেকে ১ ওভার কমিয়ে আনা হয়। তবে এই ম্যাচে কুমিল্লার বিপক্ষে বড় ইনিংস গড়তে পারেনি চিটাগং। ৮ উইকেট হারিয়ে ১১৬ রান তুলেছে তারা।

আজ টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় চিটাগং। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই জোড়া উইকেট হারায় চিটাগং। সাদমান ও ইয়াসির আলী দুজনেই শূন্য রানে ফেরেন। তৃতীয় উইকেটে ব্যাট করেত নামা মুশফিক এদিন উইকেট দিয়ে আসনে। ৭ বল থেকে ৬ রান করে ওয়াহাব রিয়াজের বলে আউট হন তিনি। এ সময় চিটাগংয়ের সংগ্রহ ৪.৩ ওভারে ১৭ রান।

দলীয় ৩৬ রানে নাজিবুল্লাহ জাদরান ১৩ রানে মাহেদি হাসানের শিকার হন। এরপর শেহেজাদ ও ডেলপোর্ট পঞ্চম উইকেটে চাপ সামলানোর চেষ্টা করেন। দলীয় স্কোর পঞ্চাশ পেরুনোর পর আবার ধাক্কা খায় চিটাগং। এ সময় ১২ বল থেকে ৬ রানে আফ্রিদির শিকার হন ডেলপোর্ট। ১১ রানের ব্যবধানে সিকান্দার রাজাও (৫) ফেরেন প্যাভিলনে।

অন্যদের ব্যর্থতার দিনে শেহজাদ ক্রিজে টিকে থাকলেও ভাগ্য বিড়ম্বনার শিকার হন তিনি। দলীয় ৭০ রানে রান আউটের শিকার হবার আগে ৩৫ বল থেকে ৩৩ রান করেন তিনি। তিনি ছাড়াও আজ চিটাগংয়ের স্কোরকে সম্মানজনক স্থানে নিয়ে যাওয়ার পেছনে অবদান ছিল মোসাদ্দেক হোসেনের। মোসাদ্দেক ২৩ বল থেকে ৩৯ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন। এতে ১৯ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১১৬ রান তোলে চিটাগং।

কুমিল্লার হয়ে সাইফুদ্দীন, ওয়াহাব রিয়াজ ও আফ্রিদি ২টি করে উইকেট নেন। ১টি উইকেট নেন মাহেদি হাসান।

মন্তব্য: