অ্যাশেজের দ্বিতীয় টেস্টে প্রচণ্ড গতির বাউন্সারে আঘাত পেয়েছেন স্টিভেন স্মিথ। রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়লেও পরে ফিরেছিলেন মাঠে। সেই ঘটনার ২০ ঘন্টা পর জ্ঞান হারিয়েছেন স্মিথ।

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের মেডিকেল টিম এক বিবৃতিতে বলে, ‘আমাদের প্রতিনিধিরা সারারাত স্মিথের ওপর নজর রেখেছে। স্মিথের ঘুম খারাপ হয়নি। কিন্তু সকালের দিকে খুব একটা স্বাভাবিক ছিল না। হঠাৎই জ্ঞান হারায় স্মিথ। ওর ঝিমুনি ভাব এখনও রয়েছে।’

তারা আরো জানাচ্ছে ‘‘চোট পাওয়ার দিন স্মিথের মধ্যে সমস্যা দেখা যায়নি। কিন্তু চোট পাওয়ার ২০ ঘণ্টা পরে লক্ষ্য করা যায় ও দুর্বল হয়ে পড়ছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এ ধরনের সমস্যা আগেও দেখা গিয়েছে।’’

স্মিথ বলেন, “রবিবার সকালেও মাথায় ব্যথা অনুভব করি। যদিও গত রাতে ভাল ঘুম হয়, আমার জন্য যা বিরল।”

তিনি আরও জানান যে, বার বার পরীক্ষা করা হয়েছে তাঁকে। শনিবার ব্যথা না থাকলেও রবিবার আবার ব্যথা বোধ করেন তিনি। যদিও ধীরে ধীরে সুস্থ হচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার মেডিক্যাল দল বিবৃতিতে বলে, ‘‘দ্বিতীয় ও চতুর্থ টেস্টের মধ্যে বেশি সময় নেই। তার মধ্যে যদি লক্ষ্য করা যায়, স্মিথ পুরোপুরি সুস্থ তা হলে তৃতীয় টেস্ট খেলতে ওর সমস্যা হবে না। কিন্তু আরও ২৪ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখার পরেই তা বলা সম্ভব।’’

এদিকে বৃহস্পতিবার থেকে মাঠে গড়াচ্ছে অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টে। এই ম্যাচে তার খেলা নিয়ে শঙ্কার মধ্যে রয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। দ্রুত সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরতে উদগ্রীব স্মিথ। তবে কখনওই পুরো সুস্থ না হয়ে মাঠে নামতে রাজি নন তিনি।

মন্তব্য: