বিপিএল দিয়েই আবারো নিজের জাত চিনিয়েছিলেন তাসকিন আহমেদ। ১২ ম্যাচে ২২ উইকেট নিয়ে আসর শেষ করেছেন তিনি। যার পুরস্কার হিসেবে দীর্ঘ সময় পর জাতীয় দলের স্কোয়াডে জায়গাও পেয়ে যান। কিন্তু যেই বিপিএল দিয়ে জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন সেই বিপিএলই তাকে ছিটকে দিল জাতীয় দলের স্কোয়াড থেকে।

শুক্রবার মিরপুরে বিপিএলের রাতের ম্যাচে চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিং করছিলেন তাসকিন। নবম ওভারের চতুর্থ বলের ঘটনা, অলোক কাপালির বলে ছক্কা হাঁকান চিটাগং ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন। বলের দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে বাউন্ডারি দড়ির সঙ্গে জড়িয়ে যায় তাসকিনের বাঁ-পা। তাতেই ঘটে বিপত্তি।

সাথে সাথে সতীর্থদের কাঁধে ভর দিয়ে মাঠ ত্যাগ করেন তাসকিন। শুরুতে চোটটা গুরুতর মনে না হলেও শনিবার এমআরআই করানোর পর বোঝা গেল চোটের গভীরতা। পায়ের গোড়ালির লিগামেন্ট কিছুটা ছিঁড়ে যাওয়ায় তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে যেতে হচ্ছে তাকে। তাই শুধু ওয়ানডে সিরিজই নয় টেস্টে সিরিজ থেকেও ছিটকে যাওয়ার সম্ভবানা তৈরি হয়েছে।

জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, তাসকিনের পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে গেছে। ৪ থেকে ৬ সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হতে পারে এই পেসারকে।

সেক্ষেত্রে আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরে যাওয়া হচ্ছে না তাসকিনের। নান্নু জানিয়েছেন, তার বিকল্প হিসেবে এই সফরের দলে ডাক পেতে পারেন শফিউল ইসলাম কিংবা ইবাদত হোসেন।

এদিকে বিসিবি চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, তাসকিনের গোড়ালিতে এমআরআই করা হয়েছে, রিপোর্ট পাওয়া যাবে কাল (রোববার)। রিপোর্ট পাওয়ার পর বলা যাবে ইনজুরি কতটা গুরুতর। কাজেই এখনই বলা যাচ্ছে না, কতদিনের মধ্যে তাসকিন সুস্থ হয়ে উঠবেন। তবে এটুকু বলতে পারি, ইনজুরিটা বেশ জটিল, খুব সহসাই সুস্থ হয়ে উঠার সম্ভাবনা কম।’

মন্তব্য: