পুলওয়ামায় হামলার কারণে শনিবার ভারতের নয়া দিল্লীতে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া শুটিং বিশ্বকাপে পাক শ্যুটারদের ভিসা না দেওয়ায় অলিম্পিক কমিটির নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ল ভারত। এর জেরে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি বা আইওসির সব ধরণের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার যোগ্যতা হারালো তারা।

প্রথমে ঠিক ছিল, এই বিশ্বকাপ থেকে অলিম্পিকের ১৬টি কোটা পাবে বিভিন্ন দেশ। অর্থাৎ যে দেশ যতগুলো কোটা পাবে, সে দেশ ততজন শুটার টোকিয়ো অলিম্পিকে পাঠাতে পারবে। কিন্তু এ দিন আইওসি সাফ জানিয়ে দিল, কোনও কোটাই আর থাকছে না অলিম্পিকের জন্য।

আন্তর্জাতিক শুটিং ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির লিসিন এ দিন সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘আইওসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, টোকিয়ো অলিম্পিকের কোনও কোটা এই বিশ্বকাপ থেকে পাওয়া যাবে না। পাকিস্তানি শুটারদের ভিসা না দেওয়ার জন্যই এই সিদ্ধান্ত। অলিম্পিকের নিয়মকে আমাদের মেনে চলতেই হবে।’’

আইওসি-র এক্সিকিউটিভ বডি আরো জানিয়েছেন, আগামী দিনে ভারত সরকার যদি কোনও লিখিত পত্র দাখিল না করে সমস্ত ক্রীড়াবিদদের সুরক্ষা এবং সুষ্ঠু যাতায়াতের অঙ্গীকার করছে ততদিন পর্যন্ত এই সাসপেনশন জারি থাকবে।

এই সিদ্ধান্তের জেরে আগামী দিনে ভারতের আইওসি-র বেশকিছু প্রতিযোগিতার আয়োজন চেষ্টা জলে চলে গেল। এর মধ্যে আছে ২০২৬ সালে যুব অলিম্পিক আয়োজনের আবেদন, ২০৩০-এর এশিয়ান গেমস এবং ২০৩২-এর সামার অলিম্পিক, যা ভারতে প্রথমবার অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা ছিল।

মন্তব্য: