চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ আটের লড়াইয়ে উঠতে অসাধ্য সাধন করতে হলো ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডকে। অ্যাওয়ে ম্যাচে পিএসজির মাঠে অন্তত ৩ গোলে জিততে হলো। শেষ সমীকরণটা তারা মাঠের খেলায়ও দেখালো। বুধবার রাতে পিএসজির বিপক্ষে ১-৩ গোলের ব্যবধানে জিতল ম্যানইউ।

দুই লেগ মিলিয়ে ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড-পিএসজি স্কোরলাইন দাঁড়ায় ৩-৩। কিন্তু অ্যাওয়ে গোলের অ্যাডভান্টেজ নিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে পৌঁছে গেল ওলে গানার সোল্কজায়ারের দল।

০-২ এ পিছিয়ে থেকেই বুধবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর ফিরতি লেগে প্যারিসে পিএসজির বিরুদ্ধে মাঠে নেমেছিল ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড। ম্যাচের শুরুতেই পিএসজি ডিফেন্ডার টিলো কেরার হাস্যকর ভুলে ইউনাইটেডকে এগিয়ে দেন রোমেলু লুকাকু। পিছিয়ে পড়ার মিনিট দশেকের মধ্যেই হুয়ান বের্নাতের গোলে সমতায় ফেরে পিএসজি। এরপর আক্রমণ- প্রতি আক্রমণে জমে ওঠে ম্যাচ। ৩০ মিনিটে পিএসজি গোলরক্ষক বুঁফোর ভুলে স্কোরলাইন ২-১ করেন সেই রোমেলু লুকাকু।

পিছিয়ে পড়ে দ্বিতীয়ার্ধে ক্রমাগত ইউনাইটেড রক্ষণে আক্রমণ চালাতে থাকে প্যারিস সেন্ট জার্মেইন। ৫৫ মিনিটে ডি মারিয়ার গোল অফসাইডের(VAR) জন্য বাতিল হয়। গোলকিপার ডেভিড ডি গিয়াকে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি কিলিয়ান এমবাপে।

ম্যাচের ইনজুরি টাইমেই লুকিয়ে ছিল ম্যাচের ক্লাইম্যাক্স। ইনজুরি টাইমে র‌্যাশফোর্ডের শট কিম্বেপের হাতে লেগে বাইরে বেরিয়ে গেলে রেফারি ভিএআর-এর সাহায্যে নিয়ে পেনাল্টি দেন। স্পটকিক থেকে গোল করতে কোনও ভুল করেননি র‌্যাশফোর্ড। দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন ৩-৩ হলেও অ্যাওয়ে গোলের সুবিধে নিয়ে পিএসজিকে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটে চলে গেল ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড। এই নিয়ে টানা তিন বছর শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিল পিএসজি।

মন্তব্য: