এই মুহূর্তে দেশের অন্যতম দ্রুত গতির পেসার তাসকিনের বলে গতি আছে বেশ। অনেক সময়ই তার বলের গতি প্রতিপক্ষ শিবিরে কাঁপন ধরিয়ে দেয়। তাসকিনের বলে গতির সঙ্গে সুইংয়ের মিশেলটাও আছে কিন্তু কাটার আর স্লোয়ার তেমন নেই।

বর্তমান বিশ্ব ক্রিকেটে স্লোয়ার ও কাটার দিয়ে বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানকে কাবু করে চলেছেন বাংলাদেশের আরেক গতি তারকা মুস্তাফিজুর রহমান। তার স্লোয়ারে ও কাটারে হরহামেশাই বোকা বনে যান অনেক নামী দামী ব্যাটসম্যানরা। এই মুহূর্তে রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে আইপিএল মাতাচ্ছেন তিনি।

কিন্তু তাসকিন আহমেদের কিন্তু তেমন ধারালো ও কার্যকর অস্ত্র দুটি নেই, তবে বসে নেই তিনিও। সেই না থাকা ‘অস্ত্র’ শিখে নেয়ার প্রাণপন চেষ্টা কাজ করছে তাসকিনের মধ্যে।

আজ বাংলাদেশের সাবেক ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফির সঙ্গে এক সেশন কেটেছে তাসকিনের। তাসকিন চেষ্টা করছেন মাশরাফির কাছ থেকে স্লোয়ারের কৌশলটা শিখে নেয়ার। তবে স্লোয়ার শিখতে গিয়ে তিনি বুঝলেন, এই কম্ম তার নয়।

স্লোয়ার শিখতে গিয়ে তাসকিনের অকপট স্বীকারোক্তি আমি মোস্তাফিজ নই। কাটার মাস্টার মোস্তাফিজ কাটার ও স্লোয়ারটা খুব ভাল ছুঁড়তে পারে। স্লোয়ার ডেলিভারি শেখার চেষ্টার কারণে তাসকিন কিন্তু বলের গতি কমিয়ে ফেলার চিন্তা করছেন না। জোরে বল করাই তাসকিনের প্রথম পছন্দ। গতির সাথে কোনরকম আপোষ করতে নারাজ এই পেসার বলেই ফেলেছেন, ‘পেসের সঙ্গে আমার কোন কম্প্রোমাইজ নাই।’

তবে অকপটে স্বীকার করে নিয়েছেন, ‘আমি মোস্তাফিজ হতে পারব না। মোস্তাফিজ কাটার মাস্টার। আমি পেসের সঙ্গে একটু স্লোয়ার যোগ করছি আরকি। মোস্তাফিজের মতো কাটার আমি পারব না। আমার পেসের সঙ্গে, সুইংয়ে আগের চেয়ে বেটার কাটার যদি করতে পারি তাহলে একটা অপশন বাড়বে। ইট ক্যান বি অ্যা মাই গুড ওয়েপন।’

কাটার নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তাসকিন বলেন, তিনি আগেও কাটার ছুঁড়েছেন তবে তার কাতারের কার্যকরিতা কম ছিল। কোথায় ঘাটতি ছিল তা জানিয়ে তাসকিন বলে ওঠেন, ‘আমি কাটার আগেও করতাম। আমারটা একটু সোজা যেত, কম ঘুরত। স্লোয়ারটা কি আসলে সেইম অ্যাকশনে একটু পেস কমে গ্রিপ করা। সেটাই চেষ্টা করছি।’

মাশরাফির কাছ থেকে শিখছেন। তবে সেটা নিজের ইচ্ছার ওপর। সেটা জানিয়ে তাসকিন বলেন, ‘আমার শক্তি যেটা পেস বাউন্স এটার সঙ্গে ওটা যোগ হলে আরেকটা বিকল্প হতে পারে। মাশরাফি ভাই বলেছেন, যদি ভাল লাগে তাহলে চেষ্টা করবা। হয়ত একটু সময় লাগবে। যদি শিখতে পারি আমার মনে হয় ভাল হবে।’

তাসকিন আরও বলেন, ‘আগে তো মিরপুরের উইকেটেও আমার কাটার ধরত না। এখন একটু ধরছে। আরও অনুশীলন করব, আরও আত্মবিশ্বাসী হবো। হয়ত ভাল হবে।’