ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম ঘোষোণা আজ

fifa best 3
অনেক অপেক্ষার পরে আজ প্রকাশ হতে যাচ্ছে কে হবেন ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়ার তার নাম,ভক্তরা চান নিজেদের পছন্দের খেলোয়ারের নামটি থাকুক সেরা হয়েই।কে জিতবে ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ এ্যাওয়ার্ড? লুকা মডরিচ, মোহাম্মদ সালাহ নাকি আবারও এই ট্রফিটাকে নিজের করে রাখবেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো? আজই জানা যাবে তা। লন্ডনে এক অনুষ্ঠানে ২০১৮ সালের ‘দ্য বেস্ট মেনস প্লেয়ার’ পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে। তবে ঘোষণার আগেই রিয়াল মাদ্রিদের কোচ জুলেন লোপেতেগুই জানিয়ে দিয়েছেন, রোনাল্ডোকে পেছনে ফেলে এবারের বর্ষসেরা পুরস্কার জিতবেন লুকা মডরিচ।

স্পেনের জায়ান্ট ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ। লস ব্ল্যাঙ্কোসদের জার্সিতে গত তিন মৌসুম দুর্দান্ত খেলেছেন লুকা মডরিচ। শুধু তাই নয় ক্রোয়েশিয়ার এ মিডফিল্ডার সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর ক্লাবটিকে হ্যাটট্রিক চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতাতেও দিয়েছেন সামনে থেকে নেতৃত্ব। এদিকে গেল বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো জাতীয় দল ক্রোয়েশিয়াকেও ফাইনালে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন তিনি। এসব দিক বিবেচনা করেই লোপেতেগুই বর্ষসেরা পুরস্কারে রোনাল্ডোর চেয়ে মডরিচকেই রাখছেন এগিয়ে।

চলতি মাসের শুরুতেই বর্ষসেরা পুরস্কারের জন্য সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। সেখানে মডরিচের সঙ্গে তার সাবেক ক্লাব সতীর্থ রোনাল্ডো ছাড়াও জায়গা করে নিয়েছেন লিভারপুলের মোহাম্মদ সালাহ। তবে জায়গা হয়নি বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লিওনেল মেসির। গত মৌসুমে স্প্যানিশ লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতা হিসেবে পিচিচি ট্রফি ও ইউরোপের লীগগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ গোলের জন্য গোল্ডেন বুট জেতা মেসির তালিকায় জায়গা হয়নি। যা আবার অনেকের কাছেই অবিশ্বাস্য মনে হয়েছে।

তবে সে যাই হোক? বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জয়ের দৌড়ে এবার নিজের শিষ্য লুকা মডরিচকেই এগিয়ে রাখছেন রিয়াল মাদ্রিদের কোচ। এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে লোপেতেগুই বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগত পুরস্কারে খুব বেশি বিশ্বাস করি না। ফুটবল একটা দলগত খেলা। কিন্তু যদি দারুণ খেলোয়াড়দের স্বীকৃতি দিতেই হয় তবে আমি চাইব এটা আমাদের ক্লাবে যাক। মডরিচের দারুণ একটা মৌসুম কেটেছে। মনে হয় এবার রোনাল্ডোকে পেছনে ফেলে পুরস্কারটি নিজের করে নেবেন তিনি।’ শুধু রিয়াল মাদ্রিদের কোচ একাই নন, ক্লাবটির স্প্যানিশ তারকা ইস্কোর ভোটও মডরিচের দিকে। এ প্রসঙ্গে স্প্যানিশ মিডফিল্ডারের সোজাসাপ্টা জবাব, ‘প্রতি ম্যাচেই সে দলের জন্য সেরাটা দিয়ে থাকে। সে দুর্দান্ত এক খেলোয়াড়। ব্যালন ডি’অর তার পাওয়া উচিত।’

রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপে দুর্দান্ত পারফর্মেন্স করে ক্রোয়েশিয়াকে ফাইনালে তোলেন মডরিচ। সেই আসরে অসাধারণ পারফর্মেন্সের সৌজন্যে টুর্নামেন্টের গোল্ডেন বলও জিতেন তিনি। শুধু তাই নয়, পরবর্তীতে উয়েফার বর্ষসেরা খেলোয়াড় এমনকি বর্ষসেরা মিডফিল্ডারের পুরস্কারও নিজের শোকেসে তোলেন তিনি। দুই পুরস্কার জয়ের রাতেই লুকা মডরিচ জানিয়েছিলেন, ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের প্রতি আনুগত্য। সেই সঙ্গে জানাতে ভুললেন না মাদ্রিদেই আছেন বেশ! বিশ্বকাপের পরপরই গুঞ্জন শুনা যায় যে, রিয়াল ছাড়তে পারেন তিনি। শেষ পর্যন্ত অবশ্য বেতন বাড়িয়ে মডরিচকে খুশি করেছে রিয়াল। তারপরই রিয়ালের ক্রোয়েশিয়ান তারকা বলেন, ‘আমি শুধু খুশি না রিয়াল মাদ্রিদে আমি মহাখুশি। এই ক্লাবের হয়েই আমি আরও কয়টা বছর খেলতে চাই। তবে এটা বলতেই হবে যে, সবকিছু কেমন দ্রুত পরিবর্তন হয়ে গেল। প্রথমত টানা তৃতীয়বারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লীগ ফাইনাল জিতলাম।

আরও পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *