ইউরোপিয়ান দল বদলের জন্য হাতে সময় আছে আর মাত্র দশদিন। সময় কম থাকলেও নেইমারকে নিয়ে পিএসজির নাটক চলমান। বার্সার পর এবার রিয়াল মাদ্রিদের দেওয়ার বড় একটি প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলো তারা।

চলতি সস্তাহেই এক মৌসুমের জন্য নেইমারকে ধারে পেতে পিএসজিকে প্রস্তাব দিয়েছে বার্সা। মৌসুম শেষে ১৫০ মিলিয়ন ইউরোয় স্থায়ীভাবে নেইমরাকে কিনে নিতো তারা। কিন্তু আগের দেওয়া দুই প্রস্তাবের মতো বার্সার তৃতীয় প্রস্তাবও ফিরিয়ে দেয় পিএসজি।

বার্সার সঙ্গে পিএসজির দর কষাকষি যখন চলছিল তখন দূর থেকে নিরবে তা দেখছিল রিয়াল। সঠিক সময়ের অপেক্ষায় ছিলো তারা। পরিকল্পনা সাজিয়ে দীর্ঘ সময় পর নেইমারের জন্য পিএসজির কাছে তাদের তিন ফুটবলার ও ১০০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব রাখে তারা। কিন্তু রিয়ালের এমন প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিলো পিএসজি। ইএসপিএন’র এক রিপোর্টে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

প্রস্তাবটি আরো খোলাসা করা যাক। তিন রিয়াদের দেওয়ার প্রস্তাবে তিন ফুটবলারদের তালিকায় ছিলেন গ্যারেথ বেল, হামেশ রদ্রিগেজ এবং গোলরক্ষক কেইলর নাভাসকে।

এই তিন ফুটবলারকে ক্রয়ে রিয়াল খরচ করেছিলো প্রায় ১৭৩ মিলিয়ন ইউরো। সঙ্গে নেইমারের জন্য আরো ১০০ মিলিয়ন ইউরো ক্যাশ দিতে চায় রিয়াল মাদ্রিদ। সব মিলিয়ে রিয়ালের প্রস্তাবের বাজারমূল্য হচ্ছে ২৭৩ মিলিয়ন ইউরো।

যেখানে ২২২ মিলিয়ন ইউরোতে কেনা নেইমারে জন্য ২৫০ মিলিয়ন আকাশছোয়া দর হাঁকিয়ে বসে আছে পিএসজি। সেই হিসাবে রিয়ালের প্রস্তাবটা সাদা চোখে খুব একটা খারাপ ছিলো না।

তবে এখানে পিএসজির আপত্তির কারণ অন্য জায়গায়।দলবদলের বর্তমান বাজারে বেল (৬০ মিলিয়ন ইউরো), রদ্রিগেজ (৫০ মিলিয়ন ইউরো) ও নাভাসের (১০ মিলিয়ন ইউরো) তিনজনের সম্মিলিত মূল্য ১২০ মিলিয়ন ইউরো। অর্থাৎ, নেইমারের দামের চেয়ে ১০০ মিলিয়ন ইউরো কম। এজন্যই সঙ্গে আরও ১০০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব দিয়েছে রিয়াল। কিন্তু পিএসজির কাছে এটাও অগ্রহণযোগ্য মনে হয়েছে।

এদিকে নেইমারকে জন্য পরিকল্পনা সাজাচ্ছে জুভেন্টাসও। পাওলোর দিবালার সঙ্গে ৮০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব এখনো পিএসজির কাছে উপস্থাপন করেনি তারা। তবে রিয়ালের এত বড় প্রস্তাবে যখন পিএসজির মন গলেনি তখন জুভেন্টাসের প্রস্তাবও ধোপে টিকবে কিনা সেটা নিশ্চিত নয়। এমন পরিস্থিতিতে নেইমার ভাগ্য এখনো দোদুল্যমান অবস্থায় থাকলো।

মন্তব্য: