ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১২তম আসর শুরু হয় বির্তক দিয়ে। আর শেষটাও হলো বির্তক দিয়েই। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে ফাইনালে মহেন্দ্র সিং ধোনির রান আউট নিয়ে বিতর্ক থামছেই না।

নো বল, মানকাড আউটের পর এবার রান আউট বির্তক। রোববার (১২ এপ্রিল) আইপিএলের ফাইনালে মুম্বাইয়ের বিপক্ষে ১৫০ রানের মামুলি স্কোর তাড়া করছিলো চেন্নাই সুপার কিংস। জয়ের পথেই ছিলো তারা। মাত্র ১২ রানে ব্যবধানে সুরেশ রায়না, আম্বাতি রাইডু ও মহেন্দ্র সিং ধোনি আউট হলে চরম বিপদে পড়ে যায় চেন্নাই।

ইনিংসের হার্দিক পাণ্ডিয়ার করা ১৩তম ওভারে মিড অফে বল ঠেলে দিয়ে সিঙ্গেলকে ডাবল করার চেষ্টা করেন শেন ওয়াটসন ও মহেন্দ্র সিং ধোনি। সে সময় মিডঅফের ফিল্ডার ইশান কিশানের থ্রোতে স্টাম্প ভেঙে যায়।

রিভিউ দেখে থার্ড আম্পায়ার নাইজেল লং আউটের সিদ্ধান্ত দেন। যদিও খালি চোখেই দেখা যায় নট আউট ছিলেন ধোনি। আর এ কারণেই সেই আউট নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। ফাইনাল শেষ হয়ে গেলোও সেই বিতর্ক এখনো চলছে। একটা প্রশ্নই ঘুরছে সকলের মনে। আদৌ কি এমএস ধোনি রানআউট ছিলেন? প্রযুক্তির সাহায্য নিয়েও কি টিভি আম্পায়ার নাইজেল লং ভুল সিদ্ধান্ত দিলেন? টুইটার রীতিমত অগ্নিগর্ভ। ধোনির ফ্যানেরা ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন। আউট নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত বিশেষজ্ঞরাও। তাঁর আউট মেনে নিতে পারছেন না কেউই।

ধারাভাষ্যকারদের মধ্যে একমাত্র সঞ্জয় মঞ্জরেকরই বলেছিলেন যে, ধোনি রান আউট ছিলেন। সুনীল গাভাস্করও নিশ্চিত ছিলেন না আউট নিয়ে। কেউ কেউ বলছেন ক্রিকেটে বেনিফিট অফ ডাউট মেনে ধোনির ক্রিজে থাকা উচিত ছিল।

মন্তব্য: