আগামী মাসে আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ও পরে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজকে সামনে রেখে আজ থেকে শুরু হয়েছে বাংলাদেশ দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিযামে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) ঘোষিত প্রাথমকি দলের ২৩ সদস্যদের নিয়ে ক্যাম্প শুরু হয়েছে।

৩৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করলেও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এইচপি দলে খেলা ১০ ক্রিকেটার অংশ নেননি ক্যাম্পে। এছাড়া ছুটি কাটাতে যুক্তরাষ্ট্রে থাকায় ছিলেন না সাকিব আল হাসান। গ্রামের বাড়িতে গাছের গুড়ির সাথে হালকা চোট পেয়েছেন সৌম্য সরকার। বিয়ের কারণে ছুটিতে থাকায় ক্যাম্পে অনুপস্থিত ছিলেন সাব্বির।

লঙ্কান ট্রেনার মারিও ভিল্লাবারায়নের অধীনে সকাল সাড়ে ৮টা থেকে শুরু হয় কন্ডিশনিং ক্যাম্প। চলেছে দুপুর সাড়ে এগারটা পর্যন্ত প্রায় তিন ঘন্টা। এই কন্ডিশনিং ক্যাম্প চলবে টানা চারদিন-সোম, মঙ্গল, বুধ আর বৃহস্পতিবার।
এদিকে ক্যাম্পে উপস্থিত থাকলেও বিফ টেস্ট দেননি মাশরাফি ও সৌম্য। এ বিষয়ে ট্রেইনার বায়জিদুল ইসলাম বলেন, ‘সৌম্য সরকার অ্যান্টিবায়োটিক খাচ্ছেন তাই আজ বিফ টেস্ট দিতে পারেননি। ২৪ আগস্ট তার এই টেস্টটি দেওয়ার কথা রয়েছে।’

এদিকে মাশরাফি নিয়ে তিনি বলেন, ‘যেহেতু নিকট ভবিষ্যতে বা আগামী কয়েক মাসের মধ্যে কোনো ওয়ানডে নেই। তাই মাশরাফির ফিটনেস নিয়ে আমরা খুব একটা উদ্বিগ্ন নই, চিন্তিতও না। হাতে পর্যাপ্ত সময় আছে। তার মতো করে ট্রেনিং করতে দেয়া উচিত।’

কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর অধীনে অনুশীলন করবে ক্রিকেটাররা। আগামী ৫ থেকে ৯ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টটি অনুষ্ঠিত হবে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে।

১৩ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে ২৪ সেপ্টেম্বর শেষ হবে ত্রিদেশীয় সিরিজ। খেলাগুলো হবে ঢাকায় মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম ও চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে।

মন্তব্য: