ওয়েস্ট ইন্ডিজ অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে ফলাফল ছাপিয়ে আম্পায়ারিং বিতর্কই যেন প্রধান আলোচনার বিষয় হয়ে দাড়িয়েছিলো। আম্পায়ার রুচিরা পালিয়াগুরুগে ও ক্রিস গেফেনি বেশ কয়েকটি বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দেন যদিও রিভিউ নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ চারবার বেচে যায়। বিতর্কিত সিদ্ধান্তের দুইটিই ছিলো গেইলের বিপক্ষে। দুইবার গেইলকে ভুল আউট দেন আম্পায়ার। তবে রিভিউ নিয়ে বেচে যান গেইল। ৩য় বারের সিদ্ধান্ত সঠিক হলেও ভুলটি ছিলো অন্য জায়গায়।

ইনিংসের ৫ম ওভারের ৫ম বলে মিচেল স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউ হন গেইল। তবে এর আগের ডেলিভারিতেই স্টার্ক বোলিং সীমার বাইরে পা রেখে বল করেছিলেন, অর্থাৎ নো বল। নিয়ম অনুযায়ী পরের বলে ফ্রি হিট পাওয়ার কথা ক্যারিবীয়দের। কিন্তু আম্পায়ার গেফেনি গেইলকে আউটের সংকেত দেন। কারণ আগের বলে স্টার্কের করা পরিস্কার ওভার স্টেপিং এড়িয়ে যায় তার চোখ। শুধু গেইলই নয় হোল্ডারও দুইবার ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হন আম্পায়ারের। দুই যাত্রাতেই রিভিউ নিয়ে বেচে যান তিনি।

এই ধরনের আম্পায়ারিংয়ের সরাসরি সমালোচনা করেছেন ধারাভাষ্যকার মাইকেল হোল্ডিং। ম্যাচে আম্পায়ারিংকে জঘন্য হিসেবে উল্লেখ্য করেন হোল্ডিং। শুধু হোল্ডিংই নয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে তারকা খেলোয়াড় পোলার্ডও নিন্দা জানান আম্পায়ারদের সাধারণ ভক্তদের পাশাপাশি। একজন ভক্ততো আম্পায়ার ক্রিস গেফেনির উইকিপিডিয়া পেইজ এডিট করে গেইল হেটার নাম দিয়ে দেন।

তবে আম্পায়ারদের এই সমালোচনার মাঝেও ক্রিকেট ভক্তরা আইসিসি ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে স্মরন করিয়ে দিতে ভুলে যায়নি আম্পায়ারদের সৌজন্যেই আজ তারা বিশ্বকাপ খেলতে পারছে। আম্পায়ার উইলসন বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বেরিংটনকে একটি ভয়াবহ ভুল সিদ্ধান্ত আউট দেন। সেই আউটের কিছুক্ষণ পরই শুরু হয় বৃষ্টি ও পরবর্তীতে বৃষ্টি আইনে ম্যাচটি জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করে। আম্পায়ার ভুল আউট না দিলে স্কটল্যান্ড বৃষ্টি আইনে জয়ী হতো একটি উইকেট কম যাওয়ায়, তাহলে হয়তো আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজের তারাই জায়গায় বিশ্বকাপে থাকতো।

https://twitter.com/CheekuBhaiyya/status/1136665350458806272/photo/1


মন্তব্য: