আগামীকাল ৮ই মার্চ একদিকে মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ বনাম নিউজিল্যান্ডের মধ্যেকার দ্বিতীয় টেস্ট আর অন্যদিকে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) এবারের আসর। বিসিবি পরিচালক ও আবাহনী লিমিটেডের কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন এই টুর্নামেন্টকে আসন্ন বিশ্বকাপের কারণে খুব গুরুত্ব দিচ্ছেন। সুজনের মনে করেন, আসন্ন ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের জন্য কোন ক্রিকেটার কতটা গুরুত্ব রাখবেন ডিপিএল সে বিষয়টা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিবে। অর্থাৎ, একজন ক্রিকেটার বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত কিনা বা যোগ্য কিনা ডিপিএলের মাধ্যমে তা সঠিকভাবে জানা যাবে।

এ প্রসঙ্গে খালেদ মাহমুদ বলেন, ‘অবশ্যই অনেক গুরুত্বপূর্ণ এটি। আমি মনে করি, বাংলাদেশের ক্রিকেটের প্রেক্ষাপটে প্রেস্টিজিয়াস কোনো লিগ যদি হয়, সেটি হলো প্রিমিয়ার লিগ। সেটা অনেক যুগ থেকেই চলছে। আবাহনী-মোহামেডান দুই দলের জন্য তো বটেই, এখন আরও অনেক দল উঠে এসেছে। সবার জন্যই খুব প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও সবচেয়ে প্রেস্টিজিয়াস আমি ঢাকা লিগকেই ধরি।’

সুজন আরো বলেন, ‘প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচগুলি খুব ভালো উইকেটে খেলা হয়। ব্যাটিং সহায়ক উইকেট হয়। ইংল্যান্ডেও ভালো ব্যাটিং উইকেট হবে, হয়তো বাউন্স একটু বেশি থাকবে এখানকার চেয়ে। বিকেএসপিতে সবসময় ভালো ব্যাটিং উইকেট থাকে। মিরপুরের উইকেট এখন খারাপ না। ফতুল্লায় শেষ একটি প্র্যাকটিস ম্যাচ দেখতে গেলাম, উইকেট খারাপ লাগেনি।’

সুজন আরো যোগ করেন ‘আসলে ম্যাচ খেলা একটা অনুশীলন। বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখে যাদের যে উন্নতিগুলো দরকার, সেগুলো করতে পারে এখানে। বোলারদের জন্য এই টুর্নামেন্ট গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাটসম্যানরা যদি লম্বা ইনিংস খেলে, আত্মবিশ্বাস বাড়বে। বিশ্বকাপের জন্য দারুণ হবে।’

মন্তব্য: