বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণার আগেই মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া ছিল তাসকিন আহমেদের। কিন্তু হঠাৎ করে চমক নিয়ে জায়গা হয় আবু জায়েদ চৌধুরী রাহীর। সেই সাথে দলে জায়গা হয়নি তাসকিনের।

স্কোয়াডে জায়গা না হওয়ার আবেগ ধরে রাখতে পারেননি তাসকিন। জমাট কালো মেঘের বৃস্টি ঝরেছিল তার অশ্ৰু থেকে। অবশেষে তার জন্য হয়তোবা একটি সুখের সংবাদ আসতে যাচ্ছে।

বিশ্বকাপ শুরুর আগে আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের জন ১৭ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়। সেখানেও ছিল না তাসকিনের নাম।
কিন্তু এর পরে খবর আসে তাসকিন ও ফরহাদ রেজাকে আয়ারল্যান্ড সফরে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

আয়ারল্যান্ডে একটি প্রস্তুতি ম্যাচে খেলেছেন তাসকিন। খরুচে হলেও শিকার করেছিলেন তিন উইকেট। রাহী এখনো কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি। এমনকি রাহি ইনজুরির কারণে ঠিকমতো অনুশীলনও করেননি এতদিন।

এরই মাঝে বাতাসে গুঞ্জন মিলেছে রাহীর বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়ার! দেশের জনপ্রিয় জাতীয় দৈনিক কালের কণ্ঠের এক প্রতিবেদন অনুসারে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দলে আসতে যাচ্ছে পরিবর্তন।

দলে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে তাসকিনকে। সেক্ষেত্রে কপাল পুড়বে রাহীর। তবে স্কোয়াডের ১৬তম সদস্য হিসেবে তাকে ইংল্যান্ডে নিয়ে যাওয়া হবে।

প্রধান নির্বাচক ও চলমান সফরে টাইগারদের টিম ম্যানেজার মিনহাজুল আবেদীন নান্নুর ভাষ্যমতে,

‘ও (রাহী) তো চোটের কারণে এত দিন বোলিংই করতে পারছিল না। স্থানীয় ফিজিও যে প্রতিবেদন দিয়েছিল সে মতে সব কিছু হয়নি। আমাদের বলা হয়েছিল তিন-চার দিনে সেরে উঠবে। কিন্তু আজই প্রথম বল করার মতো অবস্থায় এসেছে রাহী।’

দেশে থাকতে একবার শোনা গিয়েছিল রাহীর অসুস্থতার কথা। কিন্তু সেটা বড় কোনো চোট ছিল না বলেই জানানো হয়েছিল তখন। কিন্তু বাংলাদেশের বিশ্বকাপ মিশন শুরুর দিন বিশেক আগে চোটের অজুহাতেই স্বপ্নের দল থেকে ছিটকে যাচ্ছেন তিনি।

প্রধান নির্বাচক এসময় কালের কণ্ঠকে আরও জানান, ‘চোট থাকলে তো পরিবর্তন করতেই হবে। তবে আমরা রাহিকে বিশ্বকাপে নিয়ে যাব। সে ক্ষেত্রে দল ১৬ জনের হবে। এটা নিয়ে আজ (গতকাল) বোর্ড সভাপতির সঙ্গে কথা হবে।’

এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না হলেও প্রধান নির্বাচকের কথায় এটা স্পষ্ট যে, রাহীর পরিবর্তে তাসকিনই দলে যুক্ত হতে যাচ্ছেন।

মন্তব্য: