অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মেলবোর্ন পার্কে শেষ ষোলোর লড়াইয়ে সিতসিপাসের ‘বিস্ময়’ পারফরম্যান্সের কোনও উত্তর ছিল না ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন তথা ২০ বারের গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী রজার ফেডেরারের কাছে। কোয়ার্টারের লড়াইয়ে নাদালের দেশেরই রবার্তো বাতিস্তা অগাতকে হারিয়ে সেমিতে রাফার মুখোমুখি হন গ্রিক রূপকথার নায়ক।

তবে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে সিতসিপাসের জয়রথ থামালেন স্প্যানিশ তারকা রাফায়েল নাদালের। বৃহস্পতিবার তাকে হারিয়েই অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের অষ্টাদশ গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ের লক্ষ্যে ফাইনালে পৌঁছালেন নাদাল।

বৃহস্পতিবার সেমিফাইনালে রাফায়েল নাদালের কাছে দাঁড়াতেই পারলেন না তরুণ গ্রিক খেলোয়াড় স্তেফানোস সিতসিপাস। স্প্যানিশ মায়েস্ত্রোর কাছে স্ট্রেট সেটেই হেরে বসলেন টেনিসে গ্রিক উত্থানের নায়ক। নাদালের পক্ষে ম্যাচের ফল ৬-২, ৬-৪, ৬-০। অর্থাৎ কোনও সেট না খুঁইয়েই বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের ফাইনালে পৌঁছলেন তিনি।

২৫ তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম ফাইনালে ওঠার পথে অ্যালেক্স ডি মিনার, ফ্রান্সেস টিয়াফোর পর এদিন পরবর্তী প্রজন্মের ২০ বছর বয়সী সিতসিপাসকে মাটি ধরিয়ে অভিজ্ঞতার দাম বুঝিয়ে দিলেন বত্রিশ বছরের নাদাল। অন্যদিকে স্ট্রেট সেটে ধরাশায়ী হয়ে ম্যাচ শেষে চতুর্দশ বাছাই গ্রিক রুপকথার নায়ক জানান, ‘নাদালের খেলার একটা আলাদা শৈলী রয়েছে। যা বিশ্বের অন্য কারও নেই। সেই শৈলীই আজ আমাকে খারাপ খেলতে বাধ্য করেছে।’

ম্যাচ শেষে নাদাল জানান, ‘ম্যাচটা খুব ভালো ছিল। টুর্নামেন্ট এখনও পর্যন্ত খুব ভালো হয়েছে। প্রতি দিনই নিজের সেরাটা দিচ্ছি। আশা করছি এর থেকে আরও ভালো খেলব।’

দ্বিতীয়বার অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জয়ের লক্ষ্যে ফাইনালে নাদালের প্রতিপক্ষ হবেন জকোভিচ বা লুকাস পুয়ের মধ্যে যেকোনো একজন। যাঁরা দ্বিতীয় সেমিফাইনালে নামবেন শুক্রবার।

মন্তব্য: