ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে রোববার বিশ্বকাপর সবচেয়ে আকর্ষণীয় ম্যাচে মাঠে নামছে ভারত ও পাকিস্তান। বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টা ও স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

চলতি বিশ্বকাপে পারফরম্যান্সের দিক থেকে পাকিস্তান থেকে বেশ এগিয়ে আছে ভারত। আসরে খেলা তিনটি ম্যাচেই অপরাজিত রয়েছে ভারত। অন্যদিকে পাকিস্তান আসরে চারটি ম্যাচ খেলে একটি মাত্র জয় ও দুইটি পরাজয়ের মুখ দেখেছে। টেবিলে ভারতের অবস্থান যেখানে চতুর্থ সেখানে পাকিস্তানের অবস্থান নবম।

অন্যদিকে বিশ্বকাপের পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে দেখা যায় ১৯৯২ সাল থেকে বিশ্বকাপে ছয়বার মুখোমুখি হয়েছে ভারত-পাকিস্তান। এরমধ্যে শতভাগ জয় ভারতের। তবে দুই দলের সর্বশেষ লড়াইয়ে ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে ভারতকে অনায়াসে হারিয়েছে সরফরাজের দল। এছাড়া চলতি বিশ্বকাপে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে নিজেদের সামর্থ্যের জানান দিয়েছে পাকিস্তান।

১৯৭৮ থেকে এ পর্যন্ত দল দুটি মোট ১৩১টি ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে। যেখানে ভারতের ৫৪টির বিপরীতে পাকিদের জয় ৭৩ ম্যাচে, পরিত্যাক্ত ৪, পাকিস্তানের সাফল্য ৫৭.৪৮ ভাগ।

বিশ্বকাপে দল দুটির মধ্যকার ম্যাচে সর্বোচ্চ সংগ্রহের রেকর্ড ৩০০ রান। ২০১৫ আসরে ৭ উইকেটে এই রান করেছিল ভারত। সর্বনিম্ন রান ১৭৩। ১৯৯২ বিশ্বকাপে এই রান করেছিল পাকিস্তান।

ম্যাচটির আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে সমর্থকদের উদ্দেশ্যে ভারত অধিনায়ক কোহলি বলেন, “এটা নিছকই একটা ক্রিকেট ম্যাচ। খেলা দেখুন এবং উপভোগ করুন। পাকিস্তান ম্যাচকে আলাদা করে গুরুত্ব দিচ্ছি না আমরা। আর পাঁচটা ম্যাচের মতোই এই ম্যাচের সমান গুরুত্ব।”

“পাকিস্তান ম্যাচের জন্য ড্রেসিংরুমের পরিবেশে কিছু পরিবর্তন হয়নি। দেশের হয়ে অন্যান্য ম্যাচ খেলার সময় যে পরিমাণ আবেগ কাজ করে এবং অ্যাড্রিনালিন ক্ষরণ হয়, পাক ম্যাচও সেই একই আবেগ কাজ করবে।” বলেন কোহলি।

মন্তব্য: