রাজশাহীর দেওয়া ১৪২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটের বড় জয় পেলো রংপুর। এই জয়ে কুমিল্লার সঙ্গে সুপার ফোর নিশ্চিত হলো রংপুরেরও। আর ছিটকে গেল রাজশাহী। ১১ ম্যাচে রাজশাহীর জয় ৫টিতে।

ছোটো রান তাড়া করেত নেমে শুরুতে বেগ পেতে হয় মাশরাফির রংপুরকে। দলীয় ১৩ রানের মাথায় গেইল। তিনি ১৪ বল থেকে ১০ রান করে মিরাজের বলে ফেরেন। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে রুশো ও হেলসে দলীয় স্কোর পঞ্চাশ পেরোয় রংপুর। ইনিংসের নবম ওভারের তৃতীয় বল এবং ৫৪ রানে কোয়াইজ আহম্মেদের অসাধারন একটি ডেলিভারিতে বোল্ড হন হেলস।

এ সময় ম্যাচে ভালো মতোই ছিল রাজশাহী। তবে তৃতীয় উইকেটে ৩৪ বলে রুশো ও ডি ভিলিয়ার্সের ৭১ রানের জুটি রাজশাহীকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয়। শেষ দিকে ৪৩ বল থেকে রুশো ৫৫ এবং ডি ভিলিয়ার্স ২৭ বল থেকে ৩৭ রান নিয়ে আউট হলেও প্রত্যাশিত জয় পেতে কোনো সমস্যাই হয়নি মাশরাফিদের। ১৮.৪ বলে ৪ উইকেট হারিয়ে রাজশাহীর দেওয়া ১৪২ রানের লক্ষ্যে সহজেই পৌঁছে যায় রংপুর।

রাজশাহীর হয়ে ১টি করে উইকেট নেন কোয়াইজ, সানি, মিরাজ ও কামরুল ইসলাম।

আট বল বাকি থাকতেই রংপুর ৬ উইকেটে জয় পায়। রংপুরের হয়ে ম্যাচে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যান অফ দা ম্যাচ নির্বাচিত হন ফরহাদ রেজা।

চলতি আসরে এটি রংপুরের ১১তম ম্যাচে সপ্তম জয়। এই জয় দিয়েই তারা বিপিএল ষষ্ঠ আসরের সুপার ফোরে জায়গা করে নিলো। অন্যদিকে রাজশাহী ১১ম্যাচে জয় পেয়েছে মাত্র ৫টিতে। তাদের পরাজয়ে সুপার ফোরে জায়গা নিশ্চিত হয়েছে কুমিল্লার। তারা চলতি আসরে ৭ ম্যাচ জয় পেয়েছে।

মন্তব্য: