চলতি আইপিএলের দ্বাদশ আসরে গতকাল ছিল কলকাতা বনাম চেন্নাইয়ের খেলা। গতরাতের এই ম্যাচটি ছিল পেশী বনাম মগজের খেলা। ধোনির চেন্নাই আর রাসেলের কলকতার খেলা দেখতে দলবল-সহ চেন্নাই উড়ে গিয়েছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের মালিক শাহরুখ খান।

এম এ চিদম্বরমের বাইশ গজে তাঁর সেই ‘বাহুবলী’ আন্দ্রে রাসেল ৪৪ বলে অপরাজিত ৫০ রান করেও দিয়েছিলেন।কিন্তু দলের বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত মাঠে বসে ‘বাদশা’-কে দেখতে হল চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির মগজের জয়। ফলে পয়েন্ট টেবিলে কেকেআরকে দুই নম্বরে ঠেলে দিয়ে এক নম্বরে উঠে এল ধোনির সিএসকে।

এদিকে ম্যাচ শেষে শাহরুখ টুইটে লেখেন, ‘চেন্নাইয়ে খুব আনন্দ হল। দারুণ খেলেছে সিএসকে। আমরাও নিজেদের সেরাটাই দিতে চেয়েছি। কিন্তু কখনও সেই চেষ্টা কাজে দেয় না।’

এদিকে গতকালের ম্যাচে সিএসকে-র বিরুদ্ধে ১৬ বল বাকি থাকতেই সাত উইকেটে হারের সঙ্গে বড় ধাক্কা রাসেলের বাঁ হাতের কব্জিতে চোট। একটা শট খেলার পরেই দেখা যায় ডান হাত দিয়ে বাঁ হাতের কব্জি চেপে ধরেছেন তিনি। এর পরেই ফিজিয়ো মাঠে ঢুকে স্প্রে করে দেন কব্জিতে।

যদিও রাসেল এর পরে ব্যাটও করেন। চার-ছক্কা মেরে নাইটদের রান একশো পার করে দেন। ফিল্ডিংও করেন। সাংবাদিক বৈঠকে পীযূষ চাওলার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল রাসেলের চোটের ব্যাপারে। তিনি এ ব্যাপারে কিছু বলতে পারেননি।

শাহরুখ যদিও টুইটারে লেখেন, ‘কুলদীপ মাসাজ করে দেবে রাসেলকে। নারাইনও ওকে সাহায্য করবে।’ এদিকে হারের কারণ হিসেবে পীযূষ বলছেন, ‘ভুল শট নির্বাচন করে দ্রুত চারটে উইকেট চলে গিয়েছিল। ১৩৫-১৪০ রান উঠলে লড়াই হত।’

এদিকে হতাশ কেকেআর অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক বলেন, ‘এই ধরনের উইকেটে কত রান নিরাপদ তা বোঝা যায় না। কারণ শেষের দিকে শিশির সমস্যা করে। পাওয়ার প্লে-তেই চার উইকেট চলে যাওয়া হারের বড় কারণ। এই হার ভুলে দিল্লি ম্যাচ নিয়ে ভাবতে হবে।’

মন্তব্য: