কোপা আমেরিকার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে এখন মুখোমুখি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা বনাম ব্রাজিল। অতীত ইতিহাস কিংবা পরিসংখ্যানের ধার না ধেরে ম্যাচের শুরুতেই আর্জেন্টিনাকে পেছনে ফেলে ব্রাজিলের শুরুটা ছিল দারুন।

ঘরের মাঠের সুবিধা কাজে লাগিয়ে ম্যাচের ১৯ তম মিনিটেই ম্যানচেস্টার সিটির তারকা ফরোয়ার্ড ব্রাজিলিয়ান স্টাইকার গ্যাব্রিয়েল জেসুসের দারুন এক গোলে আর্জেন্টিনাকে পেছনে ফেলে ব্রাজিল। সুযোগ পেয়েও আর্জেন্টিনা সে গোল শোধ করতে না পারায় ১-০ তে প্রথমার্ধ শেষ করে ব্রাজিল।

গোলটির জন্য জেসুস যতটানা প্রশংসার দাবিদার তার চেয়ে বেশি দাবিদার ব্রাজিলের অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার দানি আলভেসের দুর্দান্ত ড্রিবলিং। ব্রাজিলের অধিনায়ক দানি আলভেজ আর্জেন্টিনার দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল রবার্তো ফিরমিনোর উদ্দেশ্যে বাড়িয়ে দিলে ফিরমিনো বল রিসিভ না করে সরাসরি নিচু পাস দিয়ে ডি-বক্সে ফাঁকায় দাঁড়ানো গ্যাব্রিয়েল জেসুসের উদ্দেশ্যে বাড়িয়ে দেন। আর সুযোগ কাজে লাগাতে দেরি করেননি জেসুস।

২০০৭ সালে সর্বশেষ কোনো প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে দেখা হয়েছিল এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর। সেবার ভেনিজুয়েলায় অনুষ্ঠিত কোপার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল ব্রাজিল আর্জেন্টিনা। ১২ বছর পর আর একটি সুপার ক্ল্যাসিকো দেখছে ফুটবল বিশ্ব।

অন্যদিকে, আর্জেন্টিনা কখনোই ব্রাজিলের মাঠে কোপায় তাদের হারাতে পারেনি। ১৯১৯ থেকে ১৯৮৯ সাল পর্যন্ত মোট ছয়বার মুখোমুখি হয়ে আর্জেন্টিনার সেরা সাফল্য ১৯৮৩ সালে একটি গোলশূন্য ড্র।

মন্তব্য: