২০০৩ সালে একমাত্র সাফজয়ী দলটি এবার দারুণ স্বপ্ন নিয়ে পর্যটনের শহর মালদ্বীপে পা রেখেছিল। শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে শুরু, তারপর ভারতের সঙ্গে ড্র। স্বপ্নটা আরো গাঢ় হতে শুরু করল, যাতে মালদ্বীপ একটু ব্যঘাত ঘটিয়েছিল। কিন্তু নেপালের বিপক্ষে শুরুতেই জাল কাঁপিয়ে আবার ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ।

শেষ মুহূর্তে এসে আরও একবার স্বপ্ন ভাঙলো লাল সবুজ জার্সিধারীদের। মালদ্বীপের মালের ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে আর দুটা মিনিট পার করে দিতে পারলেই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ১৬ বছর পর ফাইনালে পা দিতো বাংলাদেশ। এমন সমীকরণ মাথায় নিয়ে ম্যাচের প্রথমেই এগিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। লিডটা ধরে রেখেছিল ৮৬ মিনিট পর্যন্ত।

কিন্তু শেষ মুহূর্তে এসে ভুল করে বসলো লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। বিপজ্জনক জায়গায় নেপালের এক ফুটবলারকে ফেলে দিলেন ডিফেন্ডার সাদউদ্দিন। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজাতেই সব শেষ।

১-১ গোলে ড্র হয়ে গেলো বাংলাদেশের ফাইনাল নিশ্চিত করার ম্যাচটি। ফলে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে বিদায় হয়ে গেছে অস্কার ব্রুজনের দলের। নেপাল উঠে গেছে ফাইনালে।