ফ্রেন্স কাপের ফাইনালে হারতে হয়েছে পিএসজিতে। নির্ধারিত ও এক্সট্রা টাইমের খেলা ২-২ গোলের সমতায় টাইব্রেকারে পিএসজিকে ৬-৫ গোলে হারায় রেনেস। এ সময় রানার্স ট্রফি নিতে মাঠে নেমেছিল তখন দল। এমনিই হতাশায় ডুবে ছিল গোটা দল। তার মধ্যেই এক সমর্থকের মন্তব্য নিজেকে সংযত রাখতে পারেননি ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার।

সেই ফ্যান তখন মোবাইল ক্যামেরা ধরে ছিলেন। প্রথমে নেইমার জুনিয়র সেই ফ্যানের ক্যামেরায় আঘাত করেন এবং পরে তাঁর মুখে মারতে উদ্যত হন। সেই আর পুরো ঘটনা চারদিক থেকে ক্যামেরাবন্দী করে ফেলেন ফ্যানরা। তা ছড়িয়ে পরে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার পরই নিজের ভুল বুঝতে পারেন তিনি। এবং ইনস্টাগ্রামে সেটা মেনেও নেন। তবে এটাও বলেন তাঁর জায়গায় যে কেউ থাকলে এটাই করত।

এর পর নেইমার ইনস্টাগ্রামে লেখেন, ‘‘আমি কি খুব খারাপ ব্যবহার করেছি? হ্যাঁ, কিন্তু কেউ আলাদা কিছু করতে পারত না।”

নেইমারের এক বন্ধু অ্যালেক্স বার্নার্দো ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন সেই মন্তব্য। সেই ভিডিওতে যতটা শোনা গিয়েছে সেখানে অব্যবহৃত জিয়ানলুইগি বুঁফো ও ডিফেন্ডার লেভিন কুরজাওয়ার নাম শোনা গিয়েছে।

সেটি হল অনেকটা এমন, ‘‘ও বুঁফো নোংড়া বুঁফো! ও কুরজাওয়া তোমার হাত তোমার কাছে রাখ!” এর পর মার্কো ভেরাত্তিকে: ‘‘ও বর্ণবাদী!” তার পর নেইমারকে বলেন, ‘‘যাও এবং ফুটবল খেলা শেখো।” তার পরই নিজেকে আর নিয়ন্ত্রনে রাখতে পারেননি ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার।

যিনি এই মন্তব্য করেছেন সেই এডুয়ার্দো পরে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘‘আমি ওকে অপমান করিনি, আমি ওকে বলেছি ওরা অকেজ। যখন প্লেয়াররা যাচ্ছিল তখন আমি ওদের ভেঙাচ্ছিলাম, বেরাত্তই, বুঁফো। বলছিলাম তোমরা কোনও কাজের না।”

মন্তব্য: