মঙ্গলবার রাতে বিপিএলে কুমিল্লা ও ঢাকার খেলা ছিল। এই ম্যাচে ঢাকার ব্যাটিংয়ের সময় সাকিবের কোচ সালাউদ্দিন তাকে মাঠের মাঝেই ঠেলা দিয়ে সরিয়ে দেয়। যা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় জন্ম দিয়েছে অনেক প্রশ্নের। তবে ম্যাচ শেষে বিষয়টি রসিকতা ছাড়া আর কিছুই না বলে জানালেন কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল কায়েস।

ঘটনার শুরু ঢাকার ব্যাটিংয়ে অষ্টম ওভারের সময়। কুমিল্লার মাহাদি হাসানের চতুর্থ বলটিতে এ সময় আম্পায়ার ওয়াইড দেওয়া। যদিও বলটি ঢাকার ব্যাটসম্যান দরবিশ রসুলির ব্যাটে লেগে ওয়ান বাউন্সে উইকেট রক্ষক বিজয়ের গ্লাভসে জমা হয়।

কুমিল্লা শ্রীলঙ্কান আম্পায়ার রেনমোর মার্টিনেজের এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানালে তিনি বলেন বেলার মাহাদি ফলো থ্রোতে তার সামনে দাঁড়ানোয় তিনি বলটা ঠিকমতো দেখতে পাননি। ঢাকার ব্যাটিং ইনিংসের নবম ওভারের পর স্ট্রাটেজিক টাইমআউটের দৃশ্যপটে হাজির হন সাকিবের ছোটো বেলার কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। তিনি আম্পায়ারের কাছে তার ঐ সিদ্ধান্ত দেওয়ার কারণ জানতে চান। তখন ঢাকা ডায়নামাইটস অধিনায়ক সাকিব আল হাসান কিছু একটা বলতে এলে সালাউদ্দিন তাকে হাত দিয়ে ঠেলে সরিয়ে বাইরে চলে যান।

এই ঘটনার দৃশ্য সেশ্যাল মিডিয়ার প্রকাশ পেলে তা নানা প্রশ্নের জন্ম দেয়। তবে এ বিষয় নিয়ে কায়েস জানিয়েছেন ঘটনাটা খুবই মজার একটা জিনিস। আপনারা সবাই জানেন সালাউদ্দিন স্যার সাকিবের ছোটোবেলার কোচ। কোচ হিসেবে তাঁর সাথে মজা করেছে, এটা সিরিয়াস কিছু না। সাকিবও হাসছিল। সাকিব কিছু নিয়ে অভিযোগ করেনি। সে অন্য কিছু নিয়ে আম্পায়ারের সঙ্গে কথা বলছিল, সাকিব সালাউদ্দিন স্যারের ইস্যু নিয়ে কিছু বলেনি, এটা বড় কোনো ইস্যু না। ‘সাকিব অন্য কোন ইস্যু নিয়ে হয়ত আম্পায়ারকে বলছি। সালাউদ্দিন স্যারকে নিয়ে নয়। সাকিবও সালাউদ্দিন স্যারের সঙ্গে ফাজলামো করছিলো। আমি পাশেই ছিলাম।’

মন্তব্য: