মঙ্গলবার বিপিএলের রাতের আয়োজনে কুমিল্লার বিপক্ষে টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা। ২৪ রানে সাকিবের ৩ উইকেটের সুবাদে ১৬০ রানে শেষ হয়েছে কুমিল্লার ইনিংস। শামসুর রহমানকে নিজের তৃতীয় শিকারে পরিণত করে বিপিএলে নিজের শততম উইকেটের মাইলফলেন পৌঁছালেন ঢাকার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

কুমিল্লার ওপেনিং জুটিতে আসে মাত্র ১৭ রান। ওপেনার এনামুল হক ৭ বল থেকে মাত্র ১ রান করে রাসেলের বলে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলনে ফেরেন। দলীয় ১০ রানের ব্যবধানে অধিনায়ক কায়েস ৯ বল থেকে ৭ রান করে রুবেলের শিকারে পরিণত হন। তৃতীয় উইকেটে তামিম ইকবাল ও শামসুর রহমান দলকে টেনে তোলেন। ৪২ বল থেকে তাদের ৫১ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। দলীয় ৭৮ রানে সাকিবের বলে তামিম ক্যাচ দিয়ে ফিরলে এ জুটির অবসান ঘটে। ২৯ বল থেকে ৩৪ রান করেন তামিম।

চতুর্থ উইকেটে আফ্রিদি ও শামসুর রহমান দ্রুত রান তুলতে থাকেন। তবে ইনিংসের ১৫তম ওভারে এক ওভারে দুই উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন সাকিব। তিনি প্রথমে ৮ বল থেকে ১৬ রান করা আফ্রিদি ও ৩৫ বল থেকে ৪৮ রান করা শামসুর রহমানকে প্যাভিলনে ফিরিয়ে দেন। এই ওভারে মাত্র ২ রান দেন সাকিব।

ষষ্ঠ উইকেটে পেরেরা ও ডেওসন ৩৫ রানের জুটি ভাঙ্গায় ফের ছন্দ পতন ঘটে কুমিল্লার ইনিংসে। প্রথমে ডওসন ১৪ বল থেকে ৬ রান করে রাসেলের বলে ক্যাচ আউট হন। এরপর ২০তম ওভারের প্রথম বলেই রুবেলের থ্রোতে ১২ বল থেকে ১৬ রান করে প্যাভিলনে ফেরত যান পেরেরা।

কুমিল্লার ইনিংস শেষ হয় ৮ উইকেটে ১৫৩ রানে। ঢাকার হয়ে এদিন বিপিএল ক্যারিয়ারে নিজের একশো উইকেটের মাইলফলক পূরণ করেন সাকিব। ২৪ রানে তার ৩ উইকেট ছাড়াও রুবেলের ২৭ ও রাসেল ২৭ রান দিয়ে ২টি করে উইকেট নেন।

মন্তব্য: