ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে ছিটকে পড়া সাব্বির ঘরোয়া ক্রিকেটে ছিলেননা খুব একটা ছন্দে। এমনকি বিপিএলের প্রথম ম্যাচ গুলোতেও তার ব্যাট ছিল ব্যর্থ। রংপুরের বিরুদ্ধে ম্যাচে ৮৫ রানের ইনিংসটিই যেন তাকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আবার নতুন করে ফিরিয়ে আনার জন্য যথেষ্ট ছিল!

আর এই ৮৫ রানের ঝড়ো ইনিংসটিই মাশরাফি বিন মর্তুজার মন জয় করার জন্য যেন যথেষ্ট ছিল। যার পুরস্কার হিসেবে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য সাব্বির রহমানের ৬ মাসের নিষেধাজ্ঞা কমিয়ে আনা হয়েছে এবং ১৫ সদস্যের দলে জায়গা পেয়েছে সে। তবে সেটি কোচ বা ম্যানেজমেন্ট কারো ইচ্ছাতে নয় বরং বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মর্তুজা এক প্রকার জোর করে দলে রেখেছেন সাব্বিরকে।

ছবি: প্রথম আলো

আজ মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ওয়ানডে ও টেস্ট দল ঘোষণার সময় এই কথা জানান বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত মাত্র ২-১ টি ম্যাচ ব্যাতিত অফ ফর্মে থেকেও কেন সাব্বির নিউজিল্যান্ড সফরের ওয়ানডে দলে জায়গা পেলেন এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘সাব্বিরের পারফর্মেন্স, আমি পরিস্কার করে দেই। এটা সম্পূর্ণ আমাদের অধিনায়কের পছন্দের বিষয়। ও খুব জোরালো ভাবে আমাদেরকে দাবি জানিয়েছে এবং আমরা দুজনই এই পক্ষে এগ্রি করেছি। ওরা এমন একজনকে চাচ্ছে যারা লোয়ার মিডল অর্ডারে ফাস্ট বোলারকে সামলাতে পারবে। বিশ্বকাপের প্ল্যান করে, নিউজিল্যান্ডের প্ল্যান করেই ওকে নেয়া হয়েছে। দেখা যাক, অধিনায়ক যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী তার ব্যাপারে। আমিও আশাবাদি সে ফিরে আসবে।’

সাব্বিরের নিষেধাজ্ঞা ছয় মাস থেকে কমিয়ে পাঁচ মাস করায় আগামী পহেলা ফেব্রুয়ারী থেকে সাব্বির মুক্ত হচ্ছে যে কোনো রকম নিষেধাজ্ঞা থেকে।

নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশের ওয়ানডে দল: মাশরাফি বিন মর্তুজা (ক্যাপ্টেন), সাকিব আল হাসান (ভাইস ক্যাপ্টেন), তামিম ইকবাল, লিটন কুমার দাস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী মিরাজ, নাইম হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন ও তাসকিন আহমেদ।

মন্তব্য: