ত্রিদেশীয় সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশ খেলতে নেমে সবাই-ই বুঝতে পারছিলেন- এদিন স্বাচ্ছন্দে খেলতে পারছিলেন না তামিম। কারণ প্রথম দিকে তামিম এতটাই ধীর গতিতে খেলছিলেন তা দেখে সবাই তার ব্যাটিংকে ‘আগ্রাসী তামিমের’ ব্যাটিংয়ের সাথে তুলনা করাও শুরু করে দিয়েছিলেন।

তামিম জানিয়েছেন, সেদিন শুরুতে বেশ সংগ্রামই করতে হয়েছে তাকে। আর একপ্রান্তে সৌম্য সরকার বলের সাথে পাল্লা দিয়ে রান তোলায় চাপ অনুভব করেননি তামিম। ফলে উইকেটে সেট হতে পেরেছেন, এরপর খেলেছেন ৮০ রানের এক ঝলমলে ইনিংস।

সেই ইনিংস গড়তে সৌম্যর ৭৩ রানের ঝড়ো ইনিংসের অবদান স্বীকার করে তামিম বলেন, ‘একটা সময় আটকে গিয়েছিলাম, সুন্দর শট খেলছি কিন্তু ফিল্ডারের হাতে বল চলে যাচ্ছে। কেন যেন সব ঠিকঠাক হচ্ছিল না। তখন যদি আমার অন্য প্রান্তের সঙ্গীরও একই অবস্থা হতো, তাহলে দুজনের একজনকে উইকেট দিয়ে আসতে হতো।’

সৌম্যের সাবলীল ব্যাটিং তামিমকে অনেকটাই সহজ করে দিয়েছিলো। তাই সঙ্গী সৌম্যের প্রতি তামিমের কৃতজ্ঞতা বোধটিই তুলে ধরলেন সাংবাদিকদের কাছে , ‘সে যে ধরনের ব্যাটিং করেছে, আমার ওপর থেকে চাপ অনেক কমিয়ে দিয়েছে। যখন আপনি এভাবে ভুগবেন উইকেট ছুঁড়ে বলতে হবে, আজ হচ্ছিল না! এটা খুব কঠিন, উইকেটে এভাবে থেকে গেলে ১০টা কথা শুনবেন।’

তামিম বললেন, ‘আপনি ভাবতে পারেন- ম্যাচে এভাবে করব, ওভাবে করব। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল আপনি মাঠে কেমন করছেন সেটা। মাঠে ঠিকমত পারফর্ম করতে না পারলে কিছুই ঠিকমত হবে না।’

মন্তব্য: