আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আরো একটি মাইলফলক স্পর্শ করলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ক্রিকেটের তিন সংস্করণ মিলিয়ে অধিনায়কত্বের সেঞ্চুরি পূরণ করলেন তিনি।

বুধবার সকালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে মাঠে নামার পর নতুন এই মাইলফলকে নাম লেখান তিনি। বিশ্ব ক্রিকেট ইতিহাসে যা ৪০তম ঘটনা। অর্থাৎ, এর আগে ৩৯ জন ক্রিকেটার ১০০ টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে অধিনায়কত্ব করার গৌরব অর্জন করেছেন।

১০০টি ম্যাচের মধ্যে মাশরাফি বাংলাদেশকে টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাত্র একটি ম্যাচে। ২৮ টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি ৭১টি ওয়ানডেতে নেতৃত্ব দিয়ে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিরল এ কীর্তিতে নাম লেখালেন তিনি।

বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন মুশফিকুর রহিম (৯৪টি), হাবিবুল বাশার (৮৭টি) এবং সাকিব আল হাসান এখন অবধি ৮০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন।

২০০১ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে, এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মাশরাফির অভিষেক হয়। ২০০৯ সালের শুরুতে মাশরাফি অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলের সহকারী ছিলেন। পরবর্তীতে ওই বছরেরই জুন মাসে তিনি মোহাম্মদ আশরাফুলের স্থলাভিষিক্ত হন।

কিন্তু অধিনায়ক হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাথে নিজের প্রথম ম্যাচেই তিনি হাঁটুতে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়েন তিনি। এই চোটের কারনে ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মাঠের বাইরে ছিলেন। উক্ত ম্যাচসহ পরবর্তীকালে বাংলাদেশের অধিনায়কত্ব করেন সাকিব আল হাসান।

পরবর্তীতে ২০১৪ সালের নভেম্বরে জিম্বাবুয়ের সাথে হোম সিরিজে তিনি পুনরায় অধিনায়কত্ব পান। এরপর থেকে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে নিয়মিত অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করে গেছেন তিনি। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপেও প্রথমবারের মতো বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেন তিনি। ২০১৭ সালের প্রথম দিকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিনি টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নেন।

মন্তব্য: