আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডরা এখন দারুন ফর্মে!

argentina, bdsportsnews
ফুটবলে ইউরোপিয়ান লিগের খেলাগুলোর ধরণ বিভিন্ন দলে বিভিন্ন রকম। তাছাড়া লীগের খেলাগুলোতে শিরোপা জয়ের ক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন দৃশ্য দেখা গেলেও একটা দিকে কিন্তু ঠিকই মিল দেখা যাচ্ছে। আর তা হলো, সব লিগের খেলাগুলোতেই ধুমিয়ে গোল করে যাচ্ছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডরা। আর এই ব্যাপারটা আর্জেন্টিনার জন্য সত্যিই খুব ভালো খবর, কারণ সামনেই আসছে রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮।
Sergio Aguero, argentina, bdsportsnews
ম্যানচেস্টার সিটি-ফরোয়ার্ড সার্জিও আগুয়েরো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসের একমাত্র খেলোয়াড়, যিনি তিনটি ভিন্ন ম্যাচে ন্যূনতম চারটি করে গোল করেছেন। তাছাড়া, চলতি মৌসুমে এমনিতেও দুর্দান্ত ফর্মে আছেন আগুয়েরো। শুধুমাত্র ২০১৮ সালেই তার গোল সংখ্যা ৯ টি। এছাড়াও গত ম্যাচে লেস্টার সিটিকে ৫-১ ব্যবধানে হারানোর ম্যাচে একাই ৪ টি গোল করেছেন।
higuain, di maria, argentina, bdsportsnews
গেলো সপ্তাহে গঞ্জালো হিগুয়েনের হ্যাটট্রিক ছিল সাসসুলোর বিপক্ষে। তাছাড়া শনিবার চমৎকার এক গোল করেছেন তিনি। এছাড়াও গত সপ্তাহে হ্যাটট্রিক করা ফরোয়ার্ডের মধ্যে অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়াও আছেন।
paulo dybala, argentina, bdsportsnews
জুভেন্টাসের আর এক দুর্দান্ত ফরোয়ার্ড দিবালাও চোটের কারণে মাঠের বাইরে যাবার আগে ভালোই ফর্মে ছিলেন। ডিসেম্বরের মধ্যেই লিগে ১৪ গোল করে হিগুয়েইনকেই প্রশ্নের মুখে ফেলে দিয়েছিলেন তিনি।
mauro icardi, argentina, bdsportsnews
যদিও ডিয়েগো ম্যারাডোনা ইন্টার মিলান অধিনায়ক মাউরো ইকার্দিকে বাদ দিতে বলেছেন বিশ্বকাপ থেকে, কিন্তু চোটে পড়ার আগে ১৮ গোল করে জাতীয় দলের কোচ সাম্পাওলির নজরে নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ বানিয়ে রেখেছেন তিনি। আর সেজন্যই ইকার্দিকে বাদ দিতে চাইলে ভালোভাবে ভাবতে হবে সাম্পাওলিকে।
Lionel Messi, barcelona, argentina, bdsportsnews
এখন আসা যাক লিওনেল মেসির কথায়। তাকে নিয়ে বলতে গেলে বলার তো শেষ হবে না। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এই মৌসুমে এরই মাঝেই ২৭ গোল হয়ে গেছে তাঁর। লিগে বার্সেলোনার অপরাজিত জয়ের অর্ধেক ভাগিদার যদি ভালভার্দে হয় তবে বাকি অর্ধেক চোখ বন্ধ করে হবে মেসির।

এরকম ফর্ম মেসিদের সাথে থাকলে, অন্তত রাশিয়া বিশ্বকাপে গোল নিয়ে আর ভাবার দরকার নেই আর্জেন্টাইন কোচ হোর্হে সাম্পাওলির। তবে বাছাইপর্বে প্রচন্ড গোলখরায় ভুগেছে আর্জেন্টিনা। এক মেসিই শুধু ৭ গোল করেছিলেন। আর তাছাড়া, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোল ছিল ডি মারিয়ার, তাও মাত্র দুটি।

যত যাই হোক না কেন বহু বছরের তৃষ্ণার অবসান ঘটাতে আর্জেন্টিনার সমর্থকরা বুক ভরা আশা নিয়ে তাকিয়ে আছেন মেসি, আগুয়েরো আর ডি মারিয়াদের দিকে। ইউরোপ জুড়ে দারুন ফর্মে থাকা আর্জেন্টিনার এই ফরোয়ার্ডরা ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে কি পারবেন আর্জেন্টিনার বহু বছরের শিরোপা খরা মেটাতে!

আরও পড়ুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *