ভারতের বিপক্ষে বাঁচা-মরার বাংলাদেশের লক্ষ্য ৩১৫। সেই রান তাড়া করছে বাংলাদেশ।

বড় রান তাড়া করতে তামিম ও সৌম্য সরকারের উদ্ধোধনী জুটিতে বড় রান আশা করেছিল সমর্থকরা। সেই লক্ষ্য দেখে শুনে ব্যাট চালাচ্ছিলেন এই জুটি। এই জুটিতে তামিমকে বেশি স্বাবলীল দেখালেও তাকেই প্রথমে প্যাভিলনে ফিরতে হলো।

৩৯ রানের পার্টনারশীপের সময় শামির বলে বোল্ড আউট হন তামিম। ৩১ বল থেকে ৩টি বাউন্ডারিতে ২২ রান করে প্যাভিলনে ফিরলেন। ফলে চলতি বিশ্বকাপে ক্রিজে সেট হয়ে আবারো ইনিংস বড় করতে না পারার আক্ষেপ ছড়ালেন তিনি।

সৌম্য ও সাকিব দ্বিতীয় উইকটে ৩৫ রান যোগ করেন। এরপরই বাংলাদেশ শিবিরে আঘাত আনেন পান্ডিয়া। ৩৩ রান করা সৌম্যকে সার্কেলের মধ্যে ক্যাচ আউট বানিয়ে বিদায় করেন। সৌম্যর বিদায়ে ক্রিজে সাকিবের সঙ্গে জুটি বাঁধতে আসেন মুশফিকুর।

এই জুটির দিকেই তাকিয়ে ছিলো পুরো বাংলাদেশ। তবে দলীয় ১২১ রানের সময় মুশফিকের উইকেট তুলে নেন চাহল। ২৩ বল থেকে ২৪ রান করা মুশফিকের ইনিংসে চারটি বাউন্ডারি ছিল।

চতুর্থ উইকেটে এখন সাকিব ও লিটন দাস নতুন জুটি গড়ার চেষ্টা করছেন। এই জুটিতে আসরে নিজের তৃতীয় অর্ধশতক তুলে নেন সাকিব। ৫৮ বল থেকে ৫টি বাউন্ডারিতে নিজের হাফ সেঞ্চুরি পূরণ করেন তিনি।

লিটনকে নিয়ে তিনি এখন পর্যন্ত চতুর্থ উইকেটে ৩২ রান যোগ করেছেন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৯ ওভার শেষে ১৬৩/৪। ক্রিজে সাকিব ৫৭ ও মোসাদ্দেক ০ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

মন্তব্য: