এইতো কিছুদিন আগে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চান্স পাওয়া আর্জেন্টাইন ফুটবলার এমিলিয়ানো সালা নিখোঁজ হন বিমান দুর্ঘটনায়। তার পর থেকে ফুটবল বিশ্বে চলছে শোকের মাতম। বিমানের পাইলট ডেভিড ইবটসন ছোট এক ইঞ্জিনের একটি বিমানে করে সালাকে ফরাসি ক্লাব নাঁতে থেকে ইংলিশ ক্লাব কার্ডিফ সিটিতে যোগ দিতে কার্ডিফের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছিলেন। কিন্তু খারাপ আবহাওয়ার পর তাদের আর লক্ষে পৌঁছানো হয়নি। ব্যাপক অনুসন্ধানের পর কিছু ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেলে ধারণা করা হচ্ছে খারাপ আবহাওয়ার কারণে দুর্ঘটনায় পতিত হয়ে বিমানটি রাডার থেকে হারিয়ে যায়। এবং স্বভাবতই অনুমান করা হচ্ছে, বিমানে থাকা দুজনই মারা গেছেন।

তবে সালার সাবেক গার্লফ্রেন্ড বেরেনাইস স্কার দুর্ঘটনায় শালার মৃত্যুর ব্যাপারটি মানতে পারছেননা কিছুতেই। তার বিশ্বাস, সালা বেঁচে আছেন এবং সেটা ইংলিশ চ্যানেলের কোনো দ্বীপে। বেরেনাইস স্কার বলছেন, ‘আমি আশায় আছি, সে আসবে। জানাবে সে জীবিত আছে। কোথায়? একটি দ্বীপে। আমার এমন মনে হচ্ছে, তার পরিবারও এমনটাই মনে করছে। সে উধাও হয়ে যেতে পারে না।’

সালার নিখোঁজের পর স্কার একটি টুইটে দাবি করেছিলেন, তার সাবেক বয়ফ্রেন্ডের মৃত্যুর জন্য ফুটবল মাফিয়ারা দায়ী। পরে অবশ্য ওই টুইট ডিলিট করে দেন ২৬ বছর বয়সী এই মডেল।

পরবর্তীতে ওই টুইট নিয়ে স্কার মন্তব্য করেন, ‘আমি আবেগী হয়ে পড়েছিলাম। আমার মনে হচ্ছিল অদ্ভূত কিছু ঘটেছে। তবে এই সম্পর্কে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই। আমার কেবল মনে হয়েছে, একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়ে গেল, দুজন মানুষ নিখোঁজ হয়ে গেল; কিন্তু কেউ তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করল না। সবকিছু চাপা দেয়ার চেষ্টা হলো, বিষয়টা তো অদ্ভূতই।’

উল্লেখ যে সালা ও তার বিমান নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার পর খারাপ আবহাওয়ার কারণে ও অর্থের অভাবে উদ্ধারকাজ বেশিদূর এগোতে পারেনি। পরে উদ্ধার কাজ বন্ধ হওয়া হওয়া অবস্থা হলে আর্জেন্টাইন ও বার্সেলোনা সুপারস্টার লিওনেল মেসি, এম্বাপে সহ অনেকেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলে উদ্ধার তৎপরতা এগিয়ে চলছে বলে জানা যায়।

মন্তব্য: