সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক কোচ রাসেল ডমিঙ্গোকে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে নিয়োগ দিলো বিসিবি। ১৭ই আগস্ট শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নতুন কোচের নাম ঘোষণা করেন।

এইতো কিছুদিন আগে ডমিঙ্গো বাংলাদেশে এসেছিলেন ইন্টারভিউ দিতে। বিসিবি মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বাংলাদেশ দলকে নিয়ে ডমিঙ্গোর দেয়া পরিকল্পনায় সন্তোষ প্রকাশ করে বলেছিলেন, ‘উনি (ডমিঙ্গো) বাংলাদেশ ক্রিকেট নিয়ে কী চিন্তা করেন, এ বিষয়ে তার ভাবনা পরিবেশন করেছেন। কীভাবে উনি কাজ করতে পারবেন, পারফর্মেন্স কীভাবে হবে; সব কিছু নিয়ে উনার সাথে কথা হয়েছে। আমি বলবো এটা বিসিবির জন্য সন্তোষজনক ছিলো।’

প্রায় আড়াই ঘণ্টার সাক্ষাৎকারে ডমিঙ্গো বাংলাদেশ দলকে নিয়ে ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের পরিকল্পনার কথা বলেছিলেন।

জালাল ইউনুস জানান, ‘উনি আমাদেরকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য পরিকল্পনা পরিবেশন করেছেন। আমরা তাঁর পেজেন্টেশনে সন্তুষ্ট।’

প্রোটিয়াদের টি-টোয়েন্টি দলের কোচের দায়িত্ব পালন করা ডমিঙ্গো গ্যারি কারস্টেনের সহকারী কোচ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

প্রসঙ্গত, ডমিঙ্গো ছাড়াও বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোচ হওয়ার দৌড়ে ছিলেন জিম্বাবুয়ের গ্র্যান্ট ফ্লাওয়ার, শ্রীলঙ্কার চন্ডিকা হাথুরুসিংহে, নিউজিল্যান্ডের মাইক হেসন ও ইংল্যান্ডের পল ফারব্রেসের মত বড় বড় তারকা কোচরা।

মন্তব্য: