বিশ্বকাপের আগে গত বৃহস্পতিবার আইসিসি বাৎসরিক ওয়ানডে র‍্যাংকিং প্রকাশ করেছে। যেখানে আগের অবস্থানে ধরে রাখলেও চার পয়েন্ট হারিয়েছে বাংলাদেশ দল। পরদিন শুক্রবার প্রকাশিত হলো টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিং। তবে এটিও বাংলাদেশের জন্য কোনো সুখবর বয়ে আনেনি।

র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশ তাদের পূর্ব অবস্থানই ধরে রেখেছে! কোন রেটিং পয়েন্ট না হারালেও বাংলাদেশ তাদের ১০ নম্বর অবস্থান থেকে উন্নতি করতে পারেনি! সদ্য প্রকাশিত টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের পয়েন্ট ২২০। এদিকে র‌্যাঙ্কিংয়ে তিন ধাপ উন্নতি করে বাংলাদেশের পরেই অবস্থান করছে নেপাল। বাংলাদেশ থেকে মাত্র ৮ পয়েন্ট পিছিয়ে আছে হিমালয়ের দেশটি!

তবে এখন সামনে শংকা দেখা দিচ্ছে নেপালের এই আট পয়েন্টর ব্যবধান ঘুচিয়ে টি-২০তে বাংলাদেশকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যাওয়ার। আবার আশার কথা হচ্ছে বাংলাদেশ যদি আবার ৮ পয়েন্ট অর্জন করতে পারে তাহলে উইন্ডিজ এবং শ্রীলংকাকে পিছনে ফেলে বাংলাদেশ চলে যাবে ৮ নম্বরে। ওয়ানডে এবং টেস্টে বাংলাদেশ তুলনামূলক ভাল পারফমেন্স দেখালেও টি-২০তে নিজেদের মেলে ধরতে পারছে না এতদিন পরও। সে তুলনায় আফগানিস্তান, নেপাল বাংলাদেশের চেয়ে ঢের ভালো করছে।

২০০৭ সালের বিশ্বকাপে উইন্ডিজকে হারানো, ২০১৬ সালের এশিয়া কাপ,২০১৮ সালের নিদহাস ট্রফি এবং উইন্ডিজ সফরের কথা বাদ দিলে বাংলাদেশের অর্জনের খাতাটা শূন্যই বলা চলে! টি-২০ বিশ্বকাপেও ওই এক সাফল্য ছাড়া নেই কোন অর্জন! তাই এখনই সময় টি-২০তে আরো মনোযোগী হওয়ার তা নাহলে র‍্যাংকিংয়ে নেপালের পিছনে চলে যাওয়ার মত লজ্জায়ও পড়তে হতে পারে বাংলাদেশকে।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ের শীর্ষ ২০ দলের তালিকা:

ক্রমিক দল রেটিং
১ পাকিস্তান ২৮৬
২ দক্ষিণ আফ্রিকা ২৬২
৩ ইংল্যান্ড ২৬১
৪ অস্ট্রেলিয়া ২৬১
৫ ভারত ২৬০
৬ নিউজিল্যান্ড ২৫৪
৭ আফগানিস্তান ২৪১
৮ শ্রীলঙ্কা ২২৭
৯ উইন্ডিজ ২২৬
১০ বাংলাদেশ ২২০
১১ নেপাল ২১২
১২ স্কটল্যান্ড ১৯৯
১৩ জিম্বাবুয়ে ১৯২
১৪ নেদারল্যান্ড ১৮৭
১৫ আয়ারল্যান্ড ১৮২
১৬ আরব আমিরাত ১৮১
১৭ পাপুয়া নিউগিনি ১৭২
১৮ ওমান ১৫৫
১৯ হংকং ১৫২
২০ নামিবিয়া ১৪১

মন্তব্য: