কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে ফের একটি অনবদ্য জয় পেল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু। এদিন টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করে আরসিবি ৪ উইকেটে ২০২ রান তোলে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব মাত্র ১৮৫ রানে ইনিংস শেষ করল। ফলে আইপিএলের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ জিতলেন বিরাটরা। যার ফলে আরসিবির প্লে অফে ওঠার সম্ভাবনা উজ্জ্বল হল।

এদিন বেঙ্গালুরুর হয়ে প্রথমে ব্যাট করতে নামেন কোহলি ও পার্থিব পাটেল। কোহলি ১৩ রানের আউট হলেও ঝড়ো ইনিংস খেলেন পার্টেল। তিনি ২৪ বলে ৪৩ রান করে অশ্বিনে বলে আউট হন। ১০ ওভারের শেষে আরসিবি ৮৪-৪। পর পর চার উইকেট চলে যাওয়ার পর রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরের হাল ধরেছেন এবি ডিভিলিয়ার্স ও মার্কাস স্টয়নিস। ১৫ ওভারের শেষে আরসিবি রান ছিল ১২২-৪।

শেষ তিন ওভারে আরসিবি তুলেছে ৬৮। এ সময় ডি ভিলিয়ার্সকে যোগ্য সমর্থন দেন মার্কাস স্টয়নিস। ইনিংসের শেষ ওভারে আরসিবি তুলল ২৭ একা স্টয়নিস করলেন চার বলে ২০।

এবি ডি ভিলিয়ার্স ৪৪ বলে ৮২ রানে অপরাজিত ইনিংস খেলেন। সঙ্গে মার্কাস স্টয়নিসের ৩৪ বলে ৪৬ রানের ইনিংস খেলে দারুন সঙ্গত। চার উইকেট হারানোর পর এই দু’য়ের ব্যাটে ভর করেই ২০ ওভারের শেষে আরসিবি ২০২-৪।

এদিন ২০৩ রানে টার্গেট তাড়া করতে নেমে পাঞ্জাব দারুণ শুরু করে। গেইল ১০ বলে ২৩ করে ফিরে গেলেও কেএল রাহুল ২৭ বলে ৪২ রান করেন। তবে ওভার প্রতি ১০ রান করে তাড়া করা সহজ ছিল না। মিডল অর্ডারে ময়াঙ্ক আগরওয়াল ২১ বলে ৩৫ রান, নিকোলা, পুরান ২৮ বলে ৪৬ রান করে চেষ্টা করেন। তবে ডেভিড মিলার এদিন বড় শট নিতে ব্যর্থ হন। করেন ২৫ বলে মাত্র ২৪ রান।

শেষদিকে আর কেউ রান তাড়া করে পাঞ্জাবকে জয় এনে দিতে পারেননি।২০ ওভারের শেষ ১৮৫-৭-এ শেষ হয় পাঞ্জাবের ইনিংস। যার ফলে ১৭ রানে ম্যাচ জিতে নিল ব্যাঙ্গালোর।

এই জয়ের ফলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ১১ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট পেল। অন্যদিকে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ১০ পয়েন্ট পেয়ে আটকে রইল। লিগ টেবিলের একেবারে শেষ থেকে একধাপ ওপরে উঠে এলেন বিরাটরা।

মন্তব্য: