বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের বোলিংয়ে কেউই নজর কাড়তে পারেনি। বিশেষ করে পেস বোলিংয়ে প্রায় সকলেই ছিলেন খরুচে। পাশপাশি নতুন বলে সাফল্য না পাওয়া ও বোলিংয়ে বৈচিত্র্যের ঘাটতি ছিল চোখে পড়ার মতো।
বাংলাদেশের নতুন পেস বোলিং কোচ ল্যাঙ্গাভেল্টের কাজটা সহজ হবে না সেটা স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি। যার কারণ হিসেবে লম্বা পেসারের ঘাটতির কথা বলেছেন।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে শার্ল ল্যাঙ্গাভেল্ট বলেন, ‘দেখুন বোলিংয়ে বাউন্স পাওয়ার পর লম্বা বোলারের প্রয়োজন হয়। আমাদের শুধুমাত্র তাসকিন আছে। ইনজুরি ছাড়া খেলতে পারলে সে ভালো করবে। আমার মতে বোলিংয়ে ধারাবাহিকতার জন্য আপনাকে আক্রমণাত্মক এবং সঠিক লাইন ও লেন্থ ঠিক রাখতে হবে।’

‘ইয়র্কার সব সময়ই উপকারী। কিন্তু বিশ্ব ক্রিকেট এতোটাই পরিবর্তন হয়েছে যে, আপনি যদি ইয়র্কার মিস করেন আপনার বলটি ছয় হতে পারে। এজন্য সঠিক জায়গায় ইয়র্কার ফেলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার নিত্যদিনের অনুশীলনের পর যদি আপনি ২০টি বল ইয়র্কার করার চেষ্টা করেন তাহলে আপনি ফল পাবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার প্রথম কাজ হচ্ছে এখন যারা আছে দলের আশপাশে তাদের উন্নতি করা। তবে দেখলাম অনূর্ধ-১৯ দল ইংল্যান্ডকে তাদের মাটিতেই হারিয়ে এসেছে, কাজেই সে দল থেকে প্রতিভাবান বোলারদের নিয়েও কাজ করবো।’

মন্তব্য: