রবিবার ১৮ আগস্ট ১১ পেরিয়ে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ১২ বছরে পর্দাপণ করেছেন বর্তমান সময়ের সেরা ক্রিকেটার বিরাট কোহলি। এমন দিনে নিজের ব্যবহৃত টুইটারে আবেগঘন একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি।

২০০৮ সালের ১৮ আগস্ট ডাম্বুলায় অভিষেক ওয়ানডে ম্যাচে ১৮ রানে ফিরেছিলেন প্যাভিলিয়নে। ক্যারিয়ারের শুরুতে কিছুটা হোঁচট খেতে হয়েছে তাকে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথম শতকের জন্য অপেক্ষা করতে হয়েছে এক বছর। এরপর ২০০৯ সালে ইডেন গার্ডেনে সেঞ্চুরির খাতায় নাম তোলেন তিনি। এরপর আর ঘুরে তাকাতে হয়নি তাকে।

ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে সদ্য-সমাপ্ত ওয়ানডে সিরিজেও জোড়া সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে আপাতত ৪৩টি ওয়ানডে সেঞ্চুরি তাঁর নামের পাশে। আর ৭টি সেঞ্চুরি হাঁকালেই টপকে যাবেন স্বদেশী কিংবদন্তি শচীন টেন্ডুলকারকে। যা কেবল সময়ের অপেক্ষা।

পাশাপাশি টেস্ট ক্রিকেটেও বিরাটের নামের পাশে জ্বলজ্বল করছে ২৫টি শতরান। শচীন টেন্ডুলকারের ১০০ সেঞ্চুরির রেকর্ড ভাঙার পথেই আছেন তিনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১২ বছরে পা দেওয়ার পরদিনই সোমবার সকাল-সকাল কোহলি আবেগঘন বার্তায় টুইটারে লিখলেন, ‘টিন-এজার হিসেবে ২০০৮ এই দিনে যাত্রা শুরু করার ১১ বছর পর আন্তর্জাতিক ক্যারিয়াকে ফিরে দেখা। ঈশ্বর আমাকে যা আশীর্বাদ দিয়েছেন তা আমি স্বপ্নেও ভাবিনি। সঠিক পথ খুঁজে নাও। তোমরাও তোমাদের স্বপ্ন ধাওয়া করার শক্তি সঞ্চয় করো।’

এদিকে কোহলির ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ১১ বছর পূর্তির দিনে ঘরের মাঠ ফিরোজ শাহ কোটলায় তার নামেই স্ট্য়ান্ড তৈরির কথা জানিয়েছে দিল্লি অ্যান্ড ডিস্ট্রিকট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (ডিডিসিএ)। অতীতে এই মাঠেই বীরেন্দ্র শেবাগ, বিষেন সিং বেদী, অঞ্জুম চোপড়া, মহিন্দর অমরনাথ ও মনসুর আলি খান পতৌদির নামে স্ট্য়ান্ড রয়েছে।

মন্তব্য: