আবার চোট পেলেন আন্দ্রে রাসেল। বুধবার সন্ধ্যায় ইডেনে নেট প্র্যাকটিসের সময় মুম্বাইয়ের নেট বেলার মিনাত মঞ্জেরেকারের বাউন্সারে বাঁ কাঁধে চোট পেয়েছেন আন্দ্রে রাসেল। ঠিক সেই জায়গায়, যেখানে আগেই কোটলায় দিল্লি ক্যাপিটালসের পেস বোলার হর্ষল প্যাটেলের বলে চোট পেয়েছিলেন তিনি।

বুধবার রাসেল মিনাতের বাউন্সারে আঘাত পাওয়ার পর পিচেই ১০-১৫ মিনিট শুয়ে ছিলেন। মাঠে থাকা নাইট ফিজিও, চিকিত্‍সকরা ছুটে যান। নিয়ে যাওয়া হয় স্ট্রেচারও। কিন্তু নেটেই প্রাথমিক চিকিত্‍সার পর রাসেল সতীর্থদের কাঁধে ভর দিয়ে মাঠ ছাড়েন।

বুধবার রাসেল ব্যাট করার সময় আরও একটি সমস্যা দেখা গিয়েছে। কব্জির সেই পুরনো চোট এখনও হয়তো পুরোপুরি সারেনি রাসেলের। কব্জিতে ব্যান্ড পরে ব্যাট করছিলেন ঠিকই। কিন্তু কব্জির মোচড়ে যে সব শট মারা যায়, তা একেবারেই খেলতে পারছিলেন না তিনি। একটি করে বল খেলার পরেই কব্জি দেখছিলেন। তার উপর কাঁধে চোট পাওয়ার পরে নতুন করে উদ্বেগ তৈরি হল।

নাইট শিবির থেকে জানা গেছে, ড্রেসিংরুমে ম্যাসাজ টেবিলে তাঁকে দীর্ঘক্ষণ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন নাইট ফিজিও এন্ড্রু লিপাস। চোট কতটা গুরুতর? নাইট শিবির থেকে বুধবার রাতে জানানো হয়েছে, ক্যারিবিয়ান রাসেলকে দেখে আপাতত বোঝার উপায় নেই। কারণ ড্রেসিংরুমে প্রাথমিক চিকিত্‍সার পর সতীর্থদের সঙ্গে হাসাহাসি করেছেন। মাঝে একটা দিন রয়েছে। আরও কিছু পরীক্ষা করা হবে।

তবে রাসেলের আঘাত যে নাইট শিবিরের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলছে, তা নিয়ে কোনও দ্বিমত নেই। একে তো পরপর তিনটি হার। তার ওপরে যদি রাসেল শুক্রবারের ম্যাচ থেকে ছিটকে যান চোটের কারণে, তাহলে সত্যিই বিরাট কোহলিদের বিরুদ্ধে নাইটদের বেকায়দায় পড়তে হবে। এখন দেখার বিষয় বৃহস্পতিবার কোহালির আরসিবি-র বিরুদ্ধে তিনি নামতে পারেন কি না।

মন্তব্য: