বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় স্কোর গড়ল মাশরাফির রংপুর রাইডার্স। চিটাগংয়ের বিরুদ্ধে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে দুই ব্যাটসম্যানের জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪ উইকেটে ২৩৯ রানের পাহাড় গড়েছে তারা। এদিন রংপুরের হয়ে সেঞ্চুরি করেছেন এলেক্স হেলস ও রাইলি রুশো।

রংপুরের হয়ে এদিন উদ্বোধনী জুটিতে ব্যাট করতে আসেন ক্রিস গেইল ও এলেক্স হেলস। শুরুতেই ৬ রানের মাথায় গেইলের উইকেট হারায় তারা। তবে এর পর পুরোটাই যেন রংপুর একাদশে ব্যাটসম্যান হেলস ও রুশো শো। তারা দুজনে আজ দ্বিতীয় উইকেটে গড়ে তোলেন ১৭৪ রানের জুটি। যা বিপিএল ইতিহাসে যে কোনো উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটি।

দলীয় ১৮০ রান ও ১৪.৫ ওভারের সময় মাথায় ৪৮ বল থেকে নিজের সেঞ্চুরি পূরণ করে প্যাভিলনে ফেরেন হেলস। তার ইনিংসটি ১১টি চার ও ৫টি ছক্কায় সাজানো ছিল।

তৃতীয় উইকেটে ব্যাট করতে আসা ডি ভিলিয়ার্স এদিন দুই বল থেকে ১ রান করে রাহির শিকারে পরিণত হয়। চতুর্থ উইকেটে মোহাম্মদ মিঠুনকে নিয়ে নিজের সেঞ্চুরির দিকে এগোতে থাকেন রুশো। দলীয় ২২৭ রানের সময় ১০ বল থেকে ১৫ রান করে ফেরেন মিঠুন।

মিঠুন ফিরে গেলেও নিজের সেঞ্চুরি পূরণ করে অপরাজিত থাকেন রুশো। নাহিদুলকে নিয়ে পঞ্চম উইকেটে নিজের সেঞ্চুরি পূরণ করেন তিনি। সেঞ্চুরি পূরণ করতে তিনি বল খেলেন ৫১টি। তার ইনিংসটি ৮টি চার ও ৬টি ছক্কায় সাজানো ছিল।

জোড়া সেঞ্চুরিতে ৪ উইকেট হারিয়ে ২৩৯ রানের চূড়ায় পৌঁছে যায় রংপুর। এটিই বিপিএল ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। এর আগে ২০১৭ সালে বিপিএলে ২১৭ রানের সর্বোচ্চ স্কোর গড়েছিল ঢাকা ডায়নামাইটস।

বিপিএল ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এক দলের হয়ে দুই ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরির দেখা পেলেন। এটিও একটি রেকর্ড।

চিটাগংয়ের হয়ে ৩৫ রান দিয়ে দুটি উইকেট নেন রাহি। এছাড়া রবিউল ও রেজা ১টি করে উইকেট পেলেও প্রচুর রান খরচ করেছেন।

মন্তব্য: