ইমাম-উল-হকের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস সত্বেও জয়ের মুখ দেখতে পারলোনা পাকিস্তান। বুধবার সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে পাকিস্তানের দেওয়া ৩৫৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর মাত্র ৪৪.৫ ওভারেই লক্ষ্যে পেরিয়ে যায় ইংল্যান্ড। সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। প্রথম ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যাক্ত হয়েছিল।

মঙ্গলবার ব্রিস্টলের কাউন্টি গ্রাউন্ডে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং নেয় পাকিস্তান। এদিন পাকিস্তানের হয়ে অসাধারণ একটি দেড়শো রানের সেরা ইনিংস খেলেন ইমাম উল হক। তিনি ওপেনিংয়ে ব্যাট করতে নেমে ১৩১ বলে ১৫১ রানের ইনিংস খেলেন। ইমামের ইনিংস এদিন সাজানো ছিল ১৬টি চার ও ১টি ছক্কায়।

অন্যান্যদের মধ্যে আসিফ আলির অর্ধশতরান (৫২), হ্যারিস সোহেলের ৪২ রানের ইনিংস ইংল্যান্ডকে বড় রানের টার্গেট দিতে সাহায্য করে। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ৩৫৮ রান তোলে পাকিস্তান। ইংল্যান্ডের হয়ে বল হাতে এদিন সবচেয়ে সফল ক্রিস ওকস ৬৭ রানে তুলে নেন ৪ উইকেট।

৩৫৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে দুই ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো উদ্বোধনী জুটিতেই ১৭.৩ ওভারে ১৫৯ রানের জুটি গড়েন। যা ইংল্যান্ডের জয়ের ভীত গড়ে দেয়। জেসন রয় ফেরেন ৫৫ বলে ৮টি চার ও চারটি ছক্কায় ৭৬ রান করে আর তাতেই এই জুটির সমাপ্তি হয়।

অন্য ওপেনার জনি বেয়ারস্টো মাত্র ৯৩ বলে ১৫টি চার ও পাঁচটি ছক্কায় ১২৮ রান করে আউট হন। বাকিদের মধ্যে রুট ৪৩ ও স্টোকস ৩৭ রানে আউট হলেও অধিনায়ক মরগানকে নিয়ে দলকে লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে যান মইন আলি। ৩৬ বলে ৪৬ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। অধিনায়ক মর্গ্যান অপরাজিত থাকেন ১৭ রানে। ফলে ৩১ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ইংল্যান্ড। ম্যান অফ দা ম্যাচ নির্বাচিত হন জনি বেয়ারস্ট্র।

মন্তব্য: