মঙ্গোলিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়ে বঙ্গমাতা অনূর্ধ্ব-১৯ নারী ফুটবলের ফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের হয়ে এই ম্যাচে গোল করেন তাহুরা খান, মনিকা চাকমা ও মার্জিয়া। ম্যাচ সেরা হয়েছেন মনিকা খাতুন। তার একটি গোল ছাড়াও অন্য দুটি গোল আসে তার পাস থেকে। আগামী ৩ মে লাওসের বিপক্ষে শিরোপার জন্য লড়বে লাল-সবুজের মেয়েরা।

মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে লড়াইয়ে ফরোয়ার্ড লাইনের দুই প্রধান অস্ত্র কৃষ্ণা রানী সরকার ও সিরাত জাহান স্বপ্নাকে ছাড়াই এদিন মাঠে নামতে হয়। ইনজুরির কারণে এম্যাচে ছিলেন না তারা। তাদের জায়গায় আজ প্রথম একাদশে নামানো হয়েছিল মার্জিয়া ও সাজেদাকে।

এদিন প্রথমোর্ধের শুরু থেকে মঙ্গোলিকায়ে চেপে ধরে বাংলাদেশ। তা সত্বেও বাংলাদেশ প্রথম গোলে দেখা পায় প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে। ফিনিশিংয়ের অভাবে প্রায় হাফ ডজন গোল মিস করার পর বাংলাদেশের আক্ষেপ মেটান মনিকা চাকমা। তার বাঁ পায়ের ভলিতে মঙ্গোলিয়ার জাল কাঁপালে এগিয়ে থাকার স্বস্তি নিয়ে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

বিরতি থেকে ফিরে ম্যাচের ৬৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বাংলাদেশের মেয়েরা। মনিকার বাড়িয়ে দেয়া বল ধরে মার্জিয়া অফসাইড ট্র্যাপ ভেঙ্গে বক্সে ঢুকলে সামনে এগিয়ে আসেন মঙ্গোলিয়ার গোলরক্ষক। কিন্তু মার্জিয়া নিখুঁত প্লেসিংয়ে বল চলে যায় জালে।

৮৫ মিনিটে মঙ্গোলিয়ার কফিনে শেষ পেরেক ঠুকেন সাজেদার বদলি হিসেবে নামা স্ট্রাইকার তহুরা খাতুন। মনিকার পাস থেকে বল পেয়ে তহুরা যে শট নেন, তা মঙ্গোলিয়ার এক ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে চলে যায় জালে।

মন্তব্য: