ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম দুদিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর আজই প্রথম উঁকি দিল সূর্য। উইকেট আর্দ্রতায় ভরপুর, সবুজ ঘাসে ঢাকা। উপরন্ত বাড়তি পেস-বাউন্সার পাচ্ছেন পেসাররা। সুইংও হচ্ছে। সব মিলিয়ে পেসারদের আদর্শ উইকেট। একে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশকে ২১১ রানে অলআউট করে দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

তাতে কি, সেই সমান সুযোকটাই কাজে লাগিয়েছেন বাংলাদেশি বোলার আবু জায়েদ রাহী। কিউইদের ধরাশাই করে প্রথম ৮ রানেই ফিরিয়ে দেন দুই ওপেনার টম ল্যাথাম ও রাভেলকে।

এর আগে সকালের সূর্যের তেজদ্বীপ্ত আলোর সঙ্গে বাংলাদেশের দুই ওপেনারের ব্যাটও জ্বলে উঠে। প্রথম সেশনেই যা লড়াই করার করেছে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় সেশনে অসহায় আত্মসম্পর্ণ করে ২১১ রানে অলআউট বাংলাদেশ।

রবিবার টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে কিউইদের পেস তোপে পড়তে হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের। প্রথম টেস্টের মতো দ্বিতীয় টেস্টেও যথারীতি আগুন ঝরিয়েছেন বোল্ট ও ওয়াগনার। এ দুজনই নিয়েছেন বাংলাদেশের ৭ উইকেট।

দারুণ শুরু করেন তামিম-সাদমান। সবুজাভ উইকেটে ব্যাটিং করা কঠিন হবে। তবে প্রত্যয়ী ব্যাটিংয়ে শঙ্কার মেঘ উড়িয়ে দেন তারা। চোখধাঁধানো ড্রাইভ, কাট-পুলের পসরা সাজান তামিম। তাকে যথার্থ সঙ্গ দেন সাদমান। তাতেই শুভসূচনা পায় টাইগাররা। তবে হঠাৎই খেই হারান সাদমান। ব্যক্তিগত ২৭ রানে কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমের শিকার হন তিনি।

সাদমানের বিদায়ে ভাঙে ৭৫ রানের ওপেনিং জুটি। ৭৫ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর পরের ৭৩ রান যোগ করতে বাংলাদেশ হারায় আরও ৫ উইকেট। ১২৭ রানে ৩ উইকেট নিয়ে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।বিরতির পর বাংলাদেশ শিবিরে সবথেকে বড় ধাক্কাটি দেন ওয়াগনার।

৭৪ রান করা তামিম ওয়াগনারের বল পুল করতে গিয়ে ডিপ স্কয়ার লেগে ক্যাচ দেন। ১১৪ বলে ১০ চারে তামিম সাজান নিজের ইনিংসটি। ক্রিজে এসে দুই চার ও এক ছক্কায় ভালো কিছুর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আগের ম্যাচে অভিষেক টেস্ট সেঞ্চুরি পাওয়া সৌম্য। কিন্তু এবার দৃঢ়তা দেখাতে পারেননি। ম্যাট হেনরির বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন ২০ রানে।

লিটন শেষ দিকে ৪৯ বলে ৩৩ রানের ইনিংস খেললে বাংলাদেশের রান দুইশ অতিক্রম করে। দলে ফেরা তাইজুল ইসলাম ও মুস্তাফিজুর রহমান দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। আবু জায়েদের ব্যাটও হাসেনি। বৃষ্টিতে প্রথম দুদিন নষ্ট হওয়ায় প্রত্যেক সেশনে আধাঘন্টা করে সময় বাড়ান আম্পায়াররা।

নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ওয়াগনার ৪টি, বোল্ট ৩টি, সাউদি, গ্র্যান্ডহোম ও হেনরি প্রত্যেকেই একটি করে উইকেট লাভ করেন।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, ১১.৪ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৩৮ রান। রস টেলর ১৩ বলে ১৯ এবং অধিনায়ক উইলিয়ামস ১৭ বলে ১০ রান নিয়ে অপরাজিত রয়েছেন।

বাংলাদেশ একাদশ: মাহমুদউল্লাহ (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সাদমান ইসলাম, মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুন, সৌম্য সরকার, লিটন দাস (উইকেটরক্ষক), আবু জায়েদ রাহী, তাইজুল ইসলাম, এবাদত হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান।

নিউজিল্যান্ড একাদশ: কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), জিত রাভাল, টম ল্যাথাম, রস টেলর, হেনরি নিকোলস, নেইল ওয়াগনার, বিজে ওয়াটলিং (উইকেটরক্ষক), কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, টিম সাউদি, ম্যাট হেনরি ও ট্রেন্ট বোল্ট।

মন্তব্য: