৩০ মে থেকে শুরু হতে যাওয়া ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর ওয়ার্ল্ডকাপের জন্য গত ১৫ এপ্রিল ১৫ সদস্যের শক্তিশালী দল ঘোষনা করেছিল ক্রিকেট অষ্ট্রেলিয়া। দলে ছিল ৫ জন জেনুইন পেসার যথাক্রমে মিচেল স্টার্ক,নাথান কুলতার নেইল,জেসন বেহরেন্ড্রফ,পাট কামিন্স এবং ঝাই রিচার্ডসন।

এর মধ্যে ঝাই রিচার্ডসন গত মার্চে পাকিস্তানের বিপক্ষে শারজায় ২য় ওডিয়াই এর ইনিংসের শুরুতেই ১১ তম ওভারের পঞ্চম বলে ডিপ মিড উইকেট অঞ্চলে একটি বাউন্ডারি বাচাতে গিয়ে কাধে ব্যাথা পেয়েছিলেন ঝাই রিচার্ডসন।সেই ম্যাচে কাধের চোটে পরে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে।

ওয়ার্ল্ডকাপের আগেই সুস্থ হয়ে যাবেন মনে করে ওয়ার্ল্ডকাপ স্কোয়াডে রাখা হয়েছিল ঝাই রিচার্ডসনকে।কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সুস্থ না হওয়ায় তার বদলি প্লেয়ার হিসেবে ওয়াল্ড কাপের জন্য আরেক রিচার্ডসন অর্থাৎ কেন রিচার্ডসনকে দলে নেয়া হয়েছে।

ঝাই রিচার্ডসনের ডান হাতে প্রচন্ড চাপ লেগেছিল যার কারনে তার কাধের হার সরে যায়।চোটে পরার সাথে সাথেই তাকে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়।এখন পর্যন্ত সে চোট কাটিয়ে না উঠার কারনে অষ্ট্রেলিয়া টিমের সাথে ওয়াল্ডকাপে আর যাচ্ছেননা তিনি। তার বদলে কেন রিচার্ডসনকে নেয়া হয়েছে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বেকলে জানান, ‘সাম্প্রতিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর নেটে বল করার সুযোগও দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। কিন্তু প্রত্যাশা অনুযায়ী দ্রুত কাঁধের চোটের উপশম না হওয়ায় বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে ঝাইকে বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।’

পরিবর্তিত কেন রিচার্ডসনকে আন্তর্জাতিক ২০ ওয়ানডে ম্যাচে ২৯টি উইকেট নিয়েছেন। তাকে নিয়ে ১ জুন আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

মন্তব্য: