মঙ্গলবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ১৬’র দ্বিতীয় লেগের লড়াইয়ে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে জুভেন্টাস। প্রথম লেগে ২-০ গোলে পিছিয়ে থাকা ইতালিয়ান জায়ান্টদের সামনে দলের মূল ভরসা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জ্বলে ওঠার কোন বিকল্প নেই। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত ২ টায়।

মঙ্গলবার রাতে জুভেন্টাসের ঘরের মাঠ অ্যালিয়াঞ্জ স্টেডিয়ামে হারের বদলার ম্যাচ। যেখানে শুধু জিতলেই হবে না জুভেন্টাসকে। আঁতোয়া গ্রিজ়ম্যানদের হারাতে হবে তিন গোলের ব্যবধানে। এই অবস্থায় সোমবার ছোট্ট একটি টুইট করেছিল অ্যাথলেটিকো দে মাদ্রিদ। যেখানে লেখা, ‘ওড়ার জন্য প্রস্তুত। গন্তব্য তুরিন।

মঙ্গলবারের রাতের পার্টির জন্য আর তর সইছে না।’ বার্তাতেই স্পষ্ট, ফিরতি সাক্ষাতেও জুভেন্তাসকে হারানোর ব্যাপারে রীতিমতো আত্মবিশ্বাসী অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ শিবির।

এদিকে গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচের আগে সমর্থকদের উদ্দেশ্যে রোনালদোর বার্তা, ‘‘মঙ্গলবার রাতে ইতিবাচক ভাবনার পাশাপাশি নিজেদের প্রতি বিশ্বাসও ফিরিয়ে আনতে হবে। বিশ্বাস করি, তিন গোলের ব্যবধানে জেতা সম্ভব। স্টেডিয়ামকে আনন্দ দেওয়ার জন্য আপনাদের সাহায্য দরকার। এক জোট হয়ে সকলে এক সঙ্গে চলুন।’’

চলতি মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২১ গোল করেছেন রোনালদো। আজ রাতের ম্যাচেও তার দিকেই তাকিয়ে থাকবে জুভেন্টাস সমর্থকরা। অ্যাথলেটিকোর বিরুদ্ধে পরিসখ্যানটা রোনালদোর হয়ে কথা বলছে।অ্যাথলেটিকো দে মাদ্রিদের বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত ৩২টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। যার মধ্যে তাঁর গোল ২২টি।

রাতের ম্যাচের আগে জুভেন্টাসের সামনে সব চেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে তাদেরকে এমন একটি দলের বিপক্ষে অন্তত দুই গোল করতে হবে যারা মূলত শক্তিশালী রক্ষণভাগের জন্য বিখ্যাত। দিয়েগো সিমিওনের অ্যাথলেটিকো বর্তমানে লা লিগায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। এ পর্যন্ত লিগে তারা মাত্র পাঁচ গোল হজম করেছে। এ্যাথলেটিকোর বিপক্ষে ক্যারিয়ারে ২২ গোল করা রোনালদো বলেছেন, ‘সবাই জানে তারা অত্যন্ত শক্তিশালী দল। তারা নিজেদের দারুনভাবে রক্ষা করতে পারে। ম্যাচে তারা অনেক বেশী ঝুঁকি নেয় ও কাউন্টার এ্যাটাকে খেলতে পছন্দ করে। কিন্তু আমরাও প্রস্তুত। তাদের হারানোর জন্য সম্ভাব্য সব কিছুই আমরা করবো। ম্যাচ জিতে কোয়ার্টার ফাইনালে যাওয়াই আমাদের একমাত্র লক্ষ্য।’

মন্তব্য: