পৃথিবীর বুকে লাল-সবুজ জার্সির এই বুকটা যেন বাংলাদেশর জমিন। ২০১৫ বিশ্বকাপের এই জার্সি নজর কেড়েছিলো, ক্রিক-ইনফোর ভোটে নির্বাচিত হয়েছিলো সেরা। সেই জার্সির ডিজাইন করেছিলেন সেজান লিঙ্কন। যার হাতের স্পর্শে তৈরি হয়েছিল সাকিব-মাশরাফীদের ২০১১, ১৪ বিশ্বকাপের জার্সি।

কদিন আগের অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের পরা নিজস্ব সংস্কৃতি-ঐতিহ্যের আদলে তৈরি জার্সি বিশ্বে বেশ সাড়া ফেলেছিলো। এমনই একটি সুযোগ বাংলাদেশের সামনেও রয়েছে।

২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ বছরের সুবর্ণ জয়ন্তীকে স্মরণীয় করে রাখতে সাকিব-মুশফিকরা পরতে পারেন বিশেষ আইকনিক জার্সি। আর বিশেষ আইকনিক জার্সির থিমটা তৈরি করেছেন সেই ডিজাইনার সেজান লিঙ্কন।

সেজান লিঙ্কন জানান, জার্সি ডিজাইন করি আমি সখ ও প্রচণ্ড ভালোবাসায়। ২০১৮ সালে আমি বর্ণমালা নির্ভর জার্সির একটি নতুন থিম নিয়ে বিসিবির কাছে গিয়েছিলাম। তখন বিসিবির সময়টা ভাল না থাকায় আর আগানো যায়নি।

তবে এবার আমার থিমটা হলো জার্সির মাধ্যমে পুরো বিশ্বে বাংলা বর্ণমালাটাকে পৌঁছে দেয়া। জার্সিতে থাকবে বাংলাদেশের মানচিত্র এবং স্বাধীনতা। আরও একটা জিনিস যেটা বাংলাদেশের মানুষের স্বাধীনতার বেজ জয় বাংলা স্লোগান। সেটিকে রেখেই ভাষার প্রত্যেকটা এলিমেন্টকে থ্রিডি মুভমেন্ট করা হয়েছে সেটার মধ্যে।

লিঙ্কন আরও জানান, বিসিবি বললে আমি এই মুহূর্তে তাদের সব ধরনের সহযোগিতা করতে পারবো।

বিসিবির পরিচালক জালাল ইউনুস জানান, স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনে এর চাইতে বড় কিছু আমাদের সামনে নেই। জার্সির থিমটি আমাদের পছন্দ হয়েছে, আশা করি আমরা বোর্ড প্রেসিডেন্টের সাথে কথা বলে এই বিষয়ে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারবো।

বিসিবি’র ধারণা, বিশেষ সেই জার্সি পরে সারা বছর খেলবে বাংলাদেশ। এমনকি বিশ্বকাপও। এতে করে পরোক্ষভাবে হলেও বিশ্বাসীর কাছে পৌঁছে যাবে বাঙালীয় গৌরবগাঁথা।

মন্তব্য: