carlos tevez, gonzalo higuain, Argentina, bdsportsnews
ইতালি ও স্পেনের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দুটি প্রীতি ম্যাচের জন্য আর্জেন্টিনা দলে ডাক পাওয়া জুভেন্টাসের স্ট্রাইকার গনজালো হিগুয়েনের উচ্ছাসিত প্রশংসা করেছেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের কোচ হোর্হে সাম্পাওলি।

আপাতত গোড়ালির গাঁটের চোটের কারণে মাঠের বাইরে থাকা হিগুয়েন ২০১৭ সালের জুনের পর এই প্রথম ডাক পেলেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে। দারুন ফর্মে থাকা ৩০ বছর বয়সী হিগুয়েন এইবারের সিরি আতে এখন পর্যন্ত ১৪ গোল করে আর্জেন্টিনার কোচ হোর্হে সাম্পাওলির চোখে ধরা দিয়েছেন।

যদিও আসছে প্রীতি ম্যাচ দুটিতে হিগুয়াইন জায়গা পেয়েছেন কিন্তু তার ক্লাব সতীর্থ পাওলো দিবালা ও ইন্টার মিলানের অধিনায়ক মাউরো ইকার্দি বাদ পড়েছেন।

হিগুয়াইনের প্রসঙ্গে সাম্পাওলি বলেন, “আমার চোখে সে পরিণত। সে আমাকে সন্তুষ্ট করেছে।”

তিনি আরও বলেন, “আমাদের এমন ফুটবলার দরকার যাদের ডাকলে ভালো একটি বিশ্বকাপের নিশ্চয়তা পাওয়া যাবে। দিবালা, (আতালান্তার প্লেমেকার আলেহান্দ্রো) গোমেস ও ইকার্দির মতো খেলোয়াড়দের আমরা ভালো করে জানি। তবে তুলনার জন্য আমরা অন্যদেরও দেখতে চাই। এই দুই প্রীতি ম্যাচ দলে কারো জায়গা নিশ্চিত করবে না।”

দীর্ঘদিন জাতীয় দলের বাইরে থাকা বোকা জুনিয়র্সের স্ট্রাইকার কার্লোস তেভেজের বিশ্বকাপে খেলার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না আর্জেন্টিনার জাতীয় দলের কোচ।

তেভেজ সম্পর্কে সাম্পাওলি বলেন, “তার নিজস্বতা যা আমি ভালো করে জানি এবং তার বর্তমান ফর্ম ও অতীতের কারণে তাকে মূল্যায়ন করা হতে পারে। যদিও আমরা বিশ্বকাপ প্রক্রিয়ার খুবই নিকটে আছি।”

সেরে উঠলে গাগোকে বিশ্বকাপের জন্য অবশ্যই বিবেচনা করা হবে বলে জানান আর্জেন্টিনা কোচ।

“আমি বোকা জুনিয়র্সের অনুশীলনে ছিলাম। ফের্নান্দোর অনুশীলন দেখতে আমি তার সঙ্গে ছিলাম। বিশ্বকাপে খেলার অনেক আকাঙ্ক্ষা নিয়ে সেরে উঠতে পরিশ্রম করছে সে।”

২২ সদস্যের আর্জেন্টিনা দল:

গোলকিপার: সের্হিও রোমেরো (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড), নাহুয়েল গুসমান (তাইগ্রেস), উইলি কাবাইয়েরো (চেলসি)

ডিফেন্ডার: ফেদেরিকো ফাসিও (রোমা), গাব্রিয়েল মের্কাদো (সেভিয়া), নিকোলাস ওতামেন্দি (ম্যানচেস্টার সিটি), মার্কোস রোহো (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড) রামিরো ফুনেস মোরি (এভারটন), মার্কোস আকুনিয়া (স্পোর্তিং), এদুয়ার্দো সালভিও (বেনফিকা) নিকোলাস তাগলিয়ফিকো (আয়াক্স)

মিডফিল্ডার: হাভিয়ের মাসচেরানো (হেবেই চায়না ফরচুন), লুকাস বিগলিয়া (এসি মিলান) এভার বানেগা (সেভিয়া), লিয়েন্দ্রো পারেদেস (জেনিত এফসি), আনহেল দি মারিয়া (পিএসজি), মানুয়েল লানসিনি (ওয়েস্ট হ্যাম), জিওভানি লো সেলসো (পিএসজি)

ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (বার্সেলোনা), সের্হিও আগুয়েরো (ম্যানচেস্টার সিটি), গনসালো হিগুয়াইন (ইউভেন্তুস) দিয়েগো পেরোত্তি (রোমা)

মন্তব্য: