এবারের বিশ্বকাপের প্রধান আকর্ষণ সাকিব আল হাসান। দারুন ফর্মে থাকা এই বাংলাদেশী ক্রিকেটার এখন পর্যন্ত ৪ ম্যাচ খেলে ৩৮৪ রান করেছেন এবং বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় এখন পর্যন্ত এক নম্বরে অবস্থান করছেন পর পর দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করা এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

আগামীকাল (২০ জুন) বৃহস্পতিবার নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে মহাপরাক্রমশালী অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হতে যাচ্ছে টাইগাররা। তবে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স অস্ট্রেলিয়ার জন্য যথেষ্ট ভাবনার বিষয়ে পরিণত হয়েছে। আর সাকিবের ফর্ম যেন সে ভাবনার আগুনে ফুয়েল ঢেলেছে। তবে, অস্ট্রেলিয়ার ভাবনায় চার ম্যাচে ২ ফিফটি আর পর পর ২ সেঞ্চুরি করা ব্যাটসম্যান সাকিব যতটা না গুরুত্ব পাচ্ছেন তার চেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছেন বোলার সাকিব।

ব্যাটিংয়ে বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের পাশাপাশি বোলিংয়েও কিন্তু কম যাননি সাকিব। ৪ ম্যাচ খেলে অর্জন করে নিয়েছেন ৫ উইকেট। তবে বোলিংয়ে সাকিবের সামর্থ্য যে এর চেয়ে ঢের বেশি তা ভালোমতোই জানে অজিরা। আর সে কারণেই বিশ্বের সেরা এই অলরাউন্ডারকে থামাতে গোপন অস্ত্রের শরণাপন্ন হয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

অজিদের গোপন অস্ত্রটি যদিও বিশ্ব ক্রিকেটে পরিচিত মুখ কিন্তু এই আসরের অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ স্কোয়াডে নেই। তিনি আর কেউ নন অস্ট্রেলিয়ার বাঁ-হাতি স্পিনার অ্যাশটন অ্যাগার। অ্যাগার এখন অস্ট্রেলিয়ার এ দলের সফরে ইংল্যান্ডেই অবস্থান করছেন।

সাকিবের বাঁহাতি স্পিন সামলানো যেন সহজ হয় তাই অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্যাম্পে এই স্পিনারকে ডেকে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া ম্যানেজমেন্ট। ফিঞ্চ, ওয়ার্নার, স্মিথরা যাতে সহজেই সাকিবের স্পিন বর্ষা পরাস্থ করতে পারে সে উদ্দেশ্যেই অ্যাশটনের ডাক পড়েছে অস্ট্রেলিয়া শিবিরে।

এ বিষয়ে বলতে যেয়ে অস্ট্রেলিয়ার কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার সাংবাদিকদের বলেন, ‘সাকিব বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার এবং একজন বাঁহাতি স্পিনার। অ্যাগার আসায় আমাদের প্রস্তুতিতে সাহায্য হবে। গত বছর এ সময় সে আমাদের ওয়ানডে দলেরই অংশ ছিলো। একজন বাঁহাতি স্পিনারের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করায় তাকে ডেকে নেয়া হয়েছে।’

মন্তব্য: