বৃষ্টিবিঘ্নিত তৃতীয় টেস্টের প্রথম দিনে আর্চার এর মারাত্মক বোলিংয়ে ১৭৯ রানেই অলআউট হয়ে যায় স্মিথ বিহীন অজিরা। আর্চারের ৬ উইকেটের সাথে ব্রড নেন ২ উইকেট। একটি করে নেন ওকস, স্টোকস!

দ্বিতীয় দিনের প্রথম সেশনেই ইংল্যান্ডের ৬ উইকেট তুলে নেয় অস্ট্রেলীয় পেসাররা। জস হ্যাজেলওডের নেতৃত্বে অজিদের বোলিংয়ের কোন জবাব ছিলোনা ইংলিশদের। অস্ট্রেলিয়ার মত ইংল্যান্ডেরও ওপেনিং পজিশনে জুজু লেগে আছে। জেসন রয়-ররি বার্নসদের মত ব্যর্থ অধিনায়ক জো রুটও। নেতৃত্বের ভারেই কিনা রুটের ব্যাট সংকীর্ণ হয়ে আসছে!

নতুন বলে নিয়ন্ত্রিত বোলিং আর বিষাক্ত বাউন্সারে হ্যাজেলওড, কামিন্স, প্যাটিনসনদের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণ করছে ইংল্যান্ড। হ্যাজেলওড ৩০ রানে ক্যারিয়ারের সপ্তম বারের মত ৫ উইকেট নেন। ২৩ রানে ৩ উইকেট নেন কামিন্স এবং দুটি উইকেট নেন প্যাটিনসন। ইংল্যান্ডের হয়ে সর্বোচ্চ ১২ রান করেন জো ডেনলি।

উল্লেখ্য, ১৯৪৮ সালের পর সফরকারীদের বিপক্ষে ইংল্যান্ড এর এটাই সর্বনিম্ন স্কোর।

মন্তব্য: